আপডেট : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ০২:১৬

সীতাকুণ্ডে ইউপি নির্বাচনে আ. লীগের প্রার্থী বাছাই নিয়ে সংর্ঘষ, সড়ক অবরোধ

বিডিটাইমস ডেস্ক
সীতাকুণ্ডে ইউপি নির্বাচনে আ. লীগের  প্রার্থী বাছাই নিয়ে সংর্ঘষ, সড়ক অবরোধ

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থীতা বাছাই করাকে কেন্দ্র করে চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে ৩টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ কর্মী সমর্থকদের মধ্য সংর্ঘষ ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এসময় পুলিশ গুলি চালালে ৩ জন গুলিবিদ্ধসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে।

সোমবার দুপুরে উপজেলার সৈয়দপুর,বাঁশবাড়িয়া ও বারৈয়ারঢালা ইউনিয়নে পৃথক সংর্ঘষের ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, সোমবার দুপুর দেড়টার দিকে বারৈয়ারঢালা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী বাছাই চলছিলো। এসময় চেয়ারম্যান প্রার্থী রেহান উদ্দিন রেহান ও সাইদুল ইসলামের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে প্রার্থী সাইদুল ইসলামসহ দুজনকে কুপিয়ে জখম করা হয়। তাদের উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে।

এদিকে ১ নং সৈয়দপুর ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান শওকত আলীকে ফের প্রার্থী ঘোষণা করা হলে অপর প্রার্থী আরিফুল আলম রাজুর সমর্থকরা বিক্ষুদ্ধ হয়ে উঠেন। তারা শওকত আলীর সমর্থকদের ওপর হামলার পাশাপাশি ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক ব্যারিকেড দেয়। অবরোধকালে তারা বেশ কয়েকটি গাড়ি ও দোকান ভাঙচুর করেন।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ১২ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোঁড়ে অবরোধ তুলে দিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পুলিশের গুলিতে ২ জনসহ বেশ কয়েকজন আহত হয়।

এর আগে দুপুরে বাঁশবাড়িয়া ও কোট্টবাজারে আওয়ামীলীগ কর্মীদের মাঝে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে । এসময় পুলিশ কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। স্থানীয়রা জানায় এসময় মো. ইউছুফ (৪৫) নামের এক পথচারী গুলিবিদ্ধ হয়েছে। তাকে উদ্ধার করে প্রথমে সীতাকুণ্ড হাসপাতালে পরে চমেক হাসপাতালে প্রেরণ করে। তার পায়ে ও পেটে গুলি লেগেছে। তার আবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে।

সীতাকুণ্ড থানার ওসি ইফতেখার হাসান বলেন, বারৈয়ারঢালা এলাকায় দুই চেয়ারম্যান প্রর্থীর মধ্যে সংর্ঘষে খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে পুলিশ কয়েক রাউন্ড গুলি চালালেও তবে গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হওয়ার কোনও খবর আমার জান নাই।

এদিকে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত সীতাকুণ্ড ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামীলীগ কাউন্সিলরদের ভোটে একক প্রার্থী চূড়ান্ত করা হয়েছে বলে জানাগেছে। তবে রাত পর্যন্ত তা আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেয়া হয়নি।

স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ থেকে প্রাপ্ত খবরে জানা যায়- ১নং সৈয়দপুরে বর্তমান চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম নিজামী, ২নং বারৈয়াঢালায় বর্তমান চেয়ারম্যান রায়হান উদ্দিন রায়হান, ৪নং মুরাদপুরে জাহেদ নিজামী বাবু, ৫নং ইউনিয়নে বর্তমান চেয়ারম্যান সাদাকাত উল্লাহ মিয়াজী, ৬নং বাঁশবাড়িয়ায় বর্তমান চেয়ারম্যান শওকত আলী জাহাঙ্গীর,৭নং কুমিরায় মুরশেদুল আলম চৌধুরী, ৮নং সোনাইছড়িতে মুনির আহম্মদ, ৯নং ভাটিয়ারীতে নাজিম উদ্দিন, ১০নং ছলিমপুরে বর্তমান চেয়ারম্যান সালাউদ্দিন আজিজ কাউন্সিলরদের ভোটে চেয়ারম্যান পদে দলীয় একক প্রার্থী মনোনীত হয়েছেন।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বাকের ভূইয়া জানান, প্রাথমিক ভাবে ১০ ইউনিয়নের প্রার্থী চুড়ান্ত করা হলেও আমরা এখনো আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেয়নি। তবে দু এক দিনের মধ্যে তা ঘোষণা করা হবে।

উপরে