আপডেট : ২২ জানুয়ারী, ২০১৬ ১৯:৫৭

যেকোনো সময় ছাত্রদলের সুপার কমিটি ঘোষণা!

বিডিটাইমস ডেস্ক
যেকোনো সময় ছাত্রদলের সুপার কমিটি ঘোষণা!

নানা জল্পনা-কল্পনার পর ছাত্রদলের সুপার ইউনিট হিসেবে পরিচিত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ও ঢাকা মহানগর উত্তর, দক্ষিণ, পূর্ব ও পশ্চিমের কমিটিতে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ গুরুত্বপূর্ণ পদ চূড়ান্ত করা হয়েছে। এখন অপেক্ষা শুধু ঘোষণার।

তবে আসন্ন কমিটিতে ত্যাগী নেতারা উপেক্ষিত হতে যাচ্ছেন বলে একাধিক সূত্র জানায়।

নির্ভরযোগ্য একটি সূত্র জানায়, ছাত্রদলের কমিটি গঠনে ত্যাগীদের চেয়ে বেশি গুরুত্ব পাচ্ছে তারেক রহমানের নাম ব্যবহার করে ব্যক্তি-বিশেষের সুপারিশ।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে মহানগর উত্তরের এক ছাত্রদল কর্মী জানান, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মতকে উপেক্ষা করে এ কমিটি গঠন করা হচ্ছে। তিনি আরো অভিযোগ করেন, কেন্দ্রীয় নেতারা টাকা খেয়ে উত্তরের কমিটিতে ধর্ষণ মামলার আসামি ও ইয়াবা ব্যাবসায়ীকে পর্যন্ত জায়গা দিচ্ছে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সভাপতি হিসেবে আল মেহেদী তালুকদার ও সাধারণ সম্পাদক পদে আবুল বাশার, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে সভাপতি রফিকুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক পদে আসিফ রহমান বিপ্লবের নাম শোনা যাচ্ছে।

অন্যদিকে, ঢাকা মহানগর উত্তরে সভাপতি পদে মিজানুর রহমান রাজ ও সাধারণ সম্পাদক পদে হোসেন রুবেলের নাম শোনা গেছে।

সূত্র জানায়, বিএনপি ক্ষমতায় থাকার সময়ে রুবেলের বিরুদ্ধে বাড্ডার চাইল্ডকেয়ার ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের এক শিক্ষিকাকে ধর্ষণের মামলা রয়েছে। ওই মামলায় ২০০৫ সালে বাড্ডা থানায় (মামলা নং ৪৯) ধর্ষণ মামলায় গ্রেফতার করা হয়েছিল। ওই অভিযোগে তাকে সে সময়ে সংগঠন থেকে বহিষ্কারও করা হয়। তারেক রহমানের নাম ব্যবহার করে ঢাকা মহানগর বিএনপির এক নেতার জোরালো সুপারিশে তাকে চূড়ান্ত তালিকায় রাখা হয়েছে।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি জহির উদ্দিন তুহীন ও সাধারণ সম্পাদক গাফফার চৌধুরী নির্বাচিত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

এদের মধ্যে তুহীন সম্পর্কে তেমন অভিযোগ না থাকলেও গাফফারের বিরুদ্ধে বিগত আন্দোলন সংগ্রামে না থাকার অভিযোগ রয়েছে। গাফফার বর্তমানে কামরাঙ্গীচর থানা ছাত্রদলের সভাপতি।

ঢাকা মহানগর পূর্বে সভাপতি খন্দকার এনাম ও সাধারণ সম্পাদক কামাল হোসেনের নাম এসেছে।

এই দুইজনের মধ্যে কামাল হোসেন বর্তমান মহানগর উত্তরের ১নং যুগ্ম-সম্পাদক। পূর্বে রাজনীতি না করলেও বিশেষ এক নেতার সুপারিশে তাকে পূর্বের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে চূড়ান্ত করা হয়েছে। যেকারণে ত্যাগী মতিঝিল থানা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক মানিককে বাদ দেয়া হয়েছে।

ঢাকা মহানগর পশ্চিমে সভাপতি কামরুজ্জামান জুয়েল ও সাধারণ সম্পাদক সাফায়েত রাব্বী আরাফাতের নাম শোনা গেছে। এর মধ্যে বর্তমানে আরাফাত রাব্বী দারুসসালাম থানা ছাত্রদলের আহ্বায়ক। তিনি সরকার বিরোধী আন্দোলনে রাজপথে থেকে নানা কর্মসূচি পালন করেছেন।

ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় কমিটিও পূর্ণাঙ্গ করা হয়েছে। এটিও যে কোনো সময়ে প্রকাশ করা হবে।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/পিএম

উপরে