আপডেট : ১৫ জানুয়ারী, ২০১৬ ২১:২৭

অন্তিম শয্যায় স্ত্রীর পাশে আর এ গণি

বিডিটাইমস ডেস্ক
অন্তিম শয্যায় স্ত্রীর পাশে আর এ গণি

বনানী করবস্থানে স্ত্রীর কবরের পাশে দাফন করা হয়েছে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আর এ গণিকে। জাতীয় সংসদের দক্ষিণ প্লাজায় তৃতীয় জানাজা শেষে শুক্রবার বিকেল ৪টা ২০ মিনিটে তার দাফন সম্পন্ন হয়।

শুক্রবার দুপুর আড়াইটায় নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে আর এ গণির দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এতে দলটির নেতা-কর্মীসহ সর্বস্তরের জনগণ অংশ নেন। জানাজা পড়ান ওলামা দলের সভাপতি হাফেজ আব্দুল মালেক।

দ্বিতীয় জানাজায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য তরিকুল ইসলাম, খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, নজরুল ইসলাম খান, ভাইস চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল (অব.) আলতাফ হোসেন চৌধুরী, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা খন্দকার মাহবুব হোসেন, জামায়াতের কর্মপরিষদের সদস্য ইজ্জত আলী, জাগপা সভাপতি শফিউল আলম প্রধান, লেবার পার্টির চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-ন্যাপ মহাসচিব এম গোলাম মোস্তফা ভূঁইয়া প্রমুখ অংশ নেন।

এর আগে বাদ জুমা সাত মসজিদ রোডের ধানমন্ডি ঈদগাহ মসজিদে প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এতে সাবেক এ্যাটর্নি জেনারেল হাসান আরিফ, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীসহ বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মী এবং সর্বস্তরের মানুষ অংশ নেন।

ধানমন্ডির নিজ বাসায় ৬ জানুয়ারি হৃদরোগে আক্রান্ত হন বিএনপির প্রবীণ নেতা আর এ গণি। সে দিনই তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরদিন তাকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) স্থানান্তর করা হয়। রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে বুধবার রাত সোয়া ১১টার দিকে তার লাইফ সাপোর্ট দেওয়া হয়।

পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে বৃহস্পতিবার রাত সোয়া ১২টার দিকে মারা যান তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৯১ বছর। তার তিন মেয়ে ও এক ছেলে রয়েছে।

আর এ গণি জিয়াউর রহমানের সরকারের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী ছিলেন। তার মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

উপরে