আপডেট : ৬ জানুয়ারী, ২০১৬ ১২:৪২

পদত্যাগপত্র প্রস্তুত, বিশেষ দূত থাকছেন না এরশাদ

বিডিটাইমস ডেস্ক
পদত্যাগপত্র প্রস্তুত, বিশেষ দূত থাকছেন না এরশাদ

প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত পদ থেকে পদত্যাগপত্র প্রস্তুত রেখেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। যেকোনো সময় তিনি এই পদত্যাগপত্র জমা দিতে পারেন। এছাড়াও নিজদলের তিন মন্ত্রীকে পদত্যাগের নির্দেশ দিয়ে বিরোধীদলীয় নেত্রী রওশন এরশাদকে তাগিদ দিয়েছেন।

গত সোমবার সকালে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের বারিধারার বাসায় তিনি একথা বলেন।

গত ৩০ ডিসেম্বর সারাদেশে ৭৩টি পৌরসভায় জাতীয় পার্টির প্রার্থী ছিল। একটি মাত্র পৌরসভায় জয়ী হয়েছে জাপা প্রার্থী। এ ভরাডুবির কারণে হিসেবে নিজেদের ইমেজ সঙ্কটকে দায়ী করছেন তিনি।   

এরশাদ বলেন, ‘ইমেজ সংকটে আছি। জনগণ জাতীয় পার্টিকে বিরোধী দল মনে করে না। এ জন্য পৌর নির্বাচনে আমাদের ভোট দেয়নি।’

জাতীয় পার্টির গৌরবোজ্জ্বল অতীতের কথা বলে এরশাদ বলেন, সাধারণ মানুষের কাছে জাতীয় পার্টির একটা গ্রহণযোগ্যতা আছে। আমরা প্রতিটি জেলায় সফরে যাব। কমিটি করব। মানুষের মাঝে বিকল্প রাজনীতিক দল হিসেবে গড়ে তুলব।

তিন মন্ত্রীর পদত্যাগের কথা এরশাদ বলেন, বিরোধীদলীয় নেত্রী রওশন এরশাদকে বাকি তিন মন্ত্রীর পদত্যাগের বিষয়টি চূড়ান্ত করতে বলেছি। আশা করি, দ্রুতই পদত্যাগপত্র জমা দিতে পারব। 

বর্তমান সরকারে জাতীয় পার্টির তিনজন মন্ত্রী আছেন। এরা হলেন- স্থানীয় সরকার, পল্লি উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙ্গা, পানিসম্পদমন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এবং শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নু।

দলটির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও এমপি এমন ৫ জন নেতার সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ছাড়া বিরোধীদলীয় নেত্রী, তিন মন্ত্রী এবং মন্ত্রিত্ব না পাওয়া অধিকাংশ এমপি আওয়ামী লীগের সঙ্গে মিশে গেছে। এতে করে জাতীয় পার্টির অস্তিত্ব বিলীন হওয়ার পথে। হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ এখন যে উদ্যোগ নিয়েছেন তা সময়োপযোগী। এক্ষুনি এ সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন না করলে জাতীয় পার্টি চিরতরে বিলীন হয়ে যাবে।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জেডএম

উপরে