আপডেট : ৫ জানুয়ারী, ২০১৬ ১৭:৪৮

মানুষ পোড়ালে গণতন্ত্র আসবে না

বিডিটাইমস ডেস্ক
মানুষ পোড়ালে গণতন্ত্র আসবে না

গণতন্ত্র রক্ষা করার জন্য মানুষ পুড়িয়ে মারার দরকার নেই বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম।

মঙ্গলবার দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় বর্ষপূর্তি ‘গণতন্ত্রের বিজয় দিবস’ পালন উপলক্ষে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ের সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, “দেশের সম্পদ নষ্ট করার দরকার নেই । আসুন আমরা সবাই মিলে সুষ্ঠু রাজনীতির সংস্কৃতিকে এগিয়ে নিয়ে যাই”।

সমাবেশে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, ‘দেশে গণতন্ত্র আছে কিনা- এমন শঙ্কায় পড়েছিল দেশ। ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের মধ্য দিয়ে সেই শঙ্কা দূর হয়। এই নির্বাচনের মাধ্যমে শেখ হাসিনা গণতন্ত্রের বিজয় এনে দিয়েছেন।’

খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম বলেন, ‘৫ জানুয়ারি নির্বাচন বানচাল করার জন্য মানুষ পুড়িয়ে, স্কুল-কলেজ জ্বালিয়ে দিয়েছিলেন। অবরোধ ডেকে বিএনপিনেত্রী খালেদা জিয়া মানুষ হত্যা করেছিলেন। তার অবরোধ এখনও চলছে। দেশের মানুষ এখনও খালেদার অবরোধের মধ্যে রয়েছে।’
  
বিএনপি-জামাত দেশ ও জাতির শত্রু বলেও দাবি করে কামরুল । তিনি বলেন, ‘এরা দেশের মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে, শহীদদের সংখ্যা নিয়ে প্রশ্ন তুলে বিতর্ক সৃষ্টি করতে চায়। তারা মুক্তিযুদ্ধে শহীদ বুদ্ধিজীবীদের নিয়ে প্রশ্ন তোলে। এদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হয়ে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।’ 

এদিকে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে পাকিস্তানি আখ্যা দিয়ে তাকে অব্যাহতি দিয়ে দল পুনর্গঠন করার জন্য বিএনপি নেতাদের আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব-উল আলম হানিফ।
 
হানিফ বলেন, পাকিস্তানি প্রেতাত্মা খালেদার বাংলাদেশে রাজনীতি করার অধিকার থাকতে পারে না। আমি মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী, বিএনপির বন্ধুদের কাছে অনুরোধ জানাবো আপনারা খালেদা জিয়াকে অব্যাহতি দিয়ে দলকে নতুন করে গঠন করুন। তাহলে দেশের জনগণ আপনাদের সত্যিকারের বিরোধী দল হিসেবে মেনে নেবে।

তিনি আরো বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ৫ জানুয়ারি নির্বাচন হয়েছিল বলে দেশে আজ উন্নয়নের ধারা অব্যাহত আছে। এভাবে দেশ চলতে থাকলে ২০২১ সালের মধ্যে দেশ মধ্যম আয়ে পরিণত হবেই।

সমাবেশ সভাপতিত্ব করছেন, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। সমাবেশে যোগ দিয়ে মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন- কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, দুর্যোগ ও ত্রাণ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রী মোফাজ্জাল হোসেন চৌধুরী মায়া, আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক, খালিদ মাহমুদসহ অন্যরা।
 


বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/আরকে

উপরে