আপডেট : ২৯ অক্টোবর, ২০১৮ ১৩:৩২

গাজীপুরে ‘সন্ত্রাসী’কে কুপিয়ে হত্যা

অনলাইন ডেস্ক
গাজীপুরে ‘সন্ত্রাসী’কে কুপিয়ে হত্যা

গাজীপুর সিটি করপোরেশনের ছোট দেওড়া এলাকায় দিন-দুপুরে মোতালেব নামে একাধিক মামলার এক আসামিকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এসময় মোতালেবকে বাঁচাতে গিয়ে তার বাবা মোফাজ্জল হোসেন মোফা আহত হন। তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এদিকে, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, সোমবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে মোতালেব বাড়ি থেকে বের হয়ে পাশের পুকুরপাড়ে এলে ওৎ পেতে থাকা ৭-৮ জন দুর্বৃৃত্ত মোতালেবের গতিরোধ করে। এসময় তারা ধারালো অস্ত্র দিয়ে মোতালেবকে এলোপাথারি আঘাত করে। এতে মোতালেব নিহত হন।  মোতালেবের চিৎকারে তার বাবা এগিয়ে গেলে দুর্বৃত্তরা তাকেও কুপিয়ে আহত করে। আহত মোফাকে উদ্ধার করে প্রথমে শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। পরে সেখান থেকে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

নিহতের মা মমতাজ অভিযোগ করেন, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে স্থানীয় জহির, ফিরোজসহ কয়েকজন তার ছেলে মোতালেব ও তার স্বামী মোফাকে কুপিয়েছে। তিনি এ হত্যার বিচার দাবি করেন। স্থানীয় বাসিন্দারা অভিযোগ করেন, মোতালেবের অত্যাচারের এলাকাবাসী অতিষ্ঠ। সোমবার সকালে সে প্রতিবেশী জহিরের বাড়িতে হামলা করে এবং ভাঙচুর চালায়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে জহির ও তার লোকজন মোতালেবের ওপর হামলা করে।

গাজীপুর মেট্টোপলিটন পুলিশের সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার (মিডিয়া) রুহুল আমিন সরকার বলেন, মোতালেব একজন সন্ত্রাসী। তার বিরুদ্ধে থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। গত শনিবার সদর থানায় তার বিরুদ্ধে যে ডাকাতি মামলা হয়েছে, সেখানে সে প্রধান আসামি। প্রাথমিকভাবে পূর্বশত্রুতার জের ধরে এই হত্যাকা- হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। আমরা নিহতের বাবা-মার সঙ্গে কথা বলেছি। হত্যার ঘটনায় আলামত হিসেবে এক জোড়া জুতা জব্দ করা হেেয়ছে। মামলারও প্রস্তুতি চলছে।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/রাসেল

উপরে