আপডেট : ১ মার্চ, ২০১৬ ১৫:৩৩

ধানসিড়ির ফাঁদে ৮ হাজার সদস্য, উধাও ১০ কোটি টাকা

বিডিটাইমস ডেস্ক
ধানসিড়ির ফাঁদে ৮ হাজার সদস্য, উধাও ১০ কোটি টাকা

গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার সফিপুর বাজারে অবস্থিত ধানসিড়ি বহুমুখী সমবায় সমিতি নামের একটি প্রতিষ্ঠান গ্রাহকদের জমানো কয়েক কোটি টাকা নিয়ে উধাও হয়েছে। প্রতিবাদে ওই সমিতির গ্রাহকরা ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ মিছিল করেছে।

২৯ ফেব্রুয়ারি সোমবার দুপুরে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের উপজেলার সফিপুর বাস স্ট্যান্ডে এ কর্মসূচী পালন করা হয়।

ওই সংগঠনের সদস্য মোঃ জহিরুল ইসলাম, রত্না বেগম, শিল্পী আক্তারসহ একাধিক সদস্যরা কান্না জড়িত কন্ঠে জানায়, ধানসিড়ি বহুমুখী সমবায় সমিতি নাম দিয়ে গাজীপুর সদর উপজেলার মাধুবপুর এলাকার মৃত. ইসমাইল মুন্সির ছেলে আব্দুল আজিজ (৪২) দীর্ঘদিন ধরে সমিতিটি চালিয়ে আসছিল। অধিক মুনাফার প্রলোভন দেখিয়ে প্রায় ৮ হাজারের মত সদস্য বানিয়ে তাদের কাছ থেকে প্রতিমাসে ২ হাজার থেকে শুরু করে ৮হাজার টাকা পর্যন্ত আদায় করতো বিভিন্ন মেয়াদে।

এতে কোন সদস্যের ২লাখ, কোন সদস্যের দেড় লাখ কিংবা ৪ লাখ ও ৫লাখ টাকা জমা হয়েছে। যা আজ (সোমবার) দেয়া কথা ছিল। কিন্তু সদস্যরা সকাল থেকে সফিপুরস্থ সমিতির প্রধান কার্যালয়ে এসে তালা দেখতে পায় এবং মালিক আজিজ-এর মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায়। পরে একে একে সদস্যরা জড়ো হতে থাকে এবং একপর্যায়ে দুপুরের দিকে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ মিছিল করতে থাকে। এতে ওই মহাসড়কে প্রায় পৌণে এক ঘন্টা যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এতে মহাসড়কের উভয় পাশে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয় এবং চরম ভোগান্তিতে পড়ে যাত্রীরা। পরে মৌচাক ফাঁড়ি পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌছে তাদেরকে বুঝিয়ে মহাসড়ক থেকে সড়িয়ে দিয়ে পৌণে এক ঘন্টা পর ওই মহাসড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়।

শিল্পী আক্তার নামের ওই সমিতির এক সদস্য জানায়, সে একজন পোশাক কারখানার শ্রমিক। ধানসিড়ি বহুমুখী সমবায় সমিতিতে তিন বছর মেয়াদে মাসে সাড়ে ৫ হাজার টাকা করে জমা রাখতো সে। (সোমবার) তাকে ১লাখ ৮০ হাজার টাকা দেয়ার কথা ছিল। কিন্তু সকালে অফিসে এসে তা বন্ধ পাওয়া যায়।

খবর শোনে রত্না বেগম নামের এক সদস্য জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। সে এক বছর মেয়াদে প্রতিমাসে ৭ হাজার টাকা করে রেখেছে। তবে সে ৭হাজার টাকা করে ৮ মাস জমা দিয়েছে এ সমিতিতে।

দুই বোনকে বিয়ে দেয়ার জন্য পোশাক শ্রমিক শিল্পী বেগম তিন বছর মেয়াদে এ সমিতিতে প্রতিমাসে ২ হাজার টাকা করে ডিপুজিট রেখেছে। আজ (সোমবার) টাকা দেয়ার কথা ছিল। কিন্তু এখন তার সব শেষ হয়ে গেছে।

প্রতারক আব্দুল আজিজ সদস্যদের কাছ থেকে কৌশলে সমস্ত বইপত্র অডিট করার কথা বলে বেশ কয়েকদিন আগেই নিয়ে নেয়।

বিক্ষুব্দ সদস্যরা ধানসিড়ি বহুমুখী সমবায় সমিতির মালিক প্রতারক আব্দুল আজিজকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে তাদের পাওনা পরিশোধ ও তার কঠিন শাস্তি দাবী জানান প্রশাসনের কাছে।

এব্যাপারে কালিয়াকৈর থানাধীন মৌচাক পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক (এসআই) সাইফুল আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, বিক্ষুব্দ সদস্যদেরকে বুঝিয়ে মহাসক থেকে সড়িয়ে দেয়া হয়েছে। বর্তমানের পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জেডএম

উপরে