আপডেট : ১০ মার্চ, ২০১৬ ১২:০৫

বাংলাদেশি নার্সের খোঁজে নিউ ইয়র্কের পুলিশ

বিডিটাইমস ডেস্ক
বাংলাদেশি নার্সের খোঁজে নিউ ইয়র্কের পুলিশ

নিউ ইয়র্কে তিন মাস  ধরে এক বাংলাদেশি নার্সের খোঁজ মিলছে না বলে সংবাদমাধ্যমে খবর এসেছে। মাহফুজা রহমান (৩০) নামে ওই নারীকে গত ৮ ডিসেম্বর সর্বশেষ বেলভ্যু হাসপাতালের কর্মস্থলে দেখা গেছে বলে সহকর্মীদের বরাত দিয়ে নিউ ইয়র্ক পোস্টের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

এতে বলা হয়, কর্মস্থলে না এলে পরদিন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ মাহফুজার বাসায় ফোন করলে তার স্বামী মোহাম্মদ চৌধুরী  বলেন, এক নিকটাত্মীয়ের আহত হওয়ার খবর পেয়ে মাহফুজা ঢাকায় চলে গেছেন। মার্চের প্রথম সপ্তাহের মধ্যে নিউ ইয়র্কে ফিরে হাসপাতালে যাবেন।

তবে এরপর আর মাহফুজার কোনো খোঁজ মেলেনি। মাঝে একমাত্র মেয়েকে (৯) নিয়ে ঢাকার কথা বলে বাসা থেকে চলে যান মোহাম্মদ (৩৮)।

এ পরিস্থিতিতে শুক্রবার বিষয়টি পুলিশকে জানায় বেলভ্যু হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এরপর ব্রঙ্কসের কিংসব্রিজ হেইটস এলাকার ইস্ট ১৯৮ স্ট্রিটে মাহফুজার বাসায় যায় পুলিশ।

মোহাম্মদ ১৫ ডিসেম্বর মেয়েকে নিয়ে ‘বাংলাদেশে চলে যাওয়ার’ পর থেকে বাড়িটি তালাবন্ধ আছে বলে প্রতিবেশীরা জানান। যাওয়ার সময় তিনি বাসার প্রতি খেয়াল রাখতে অনুরোধ করেছিলেন বলেও জানান কয়েকজন।

বাংলাদেশি ওই নার্সকে ‘হত্যা করে লাশ গুম করা হতে পারে’ এমন আশঙ্কায় সোমবার ওই বাসায় ব্যাপক তল্লাশি চালায় পুলিশ। বাড়ির সামনে খোঁড়াখুড়ির পাশাপাশি কুকুর দিয়ে তল্লাশি চালানো হয়।

এছাড়া মাহফুজার ব্যাংক হিসাবের তথ্য জানতে স্থানীয় আদালতে আবেদন করা হয়েছে বলে সিবিএস নিউ ইয়র্কের এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

মাহফুজা রহমান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রসায়নে স্নাতকোত্তর শেষে নিউ ইয়র্কের হান্টার কলেজ থেকে নার্সিংয়ে ডিপ্লোমা নেন বলে লিঙ্কড ইনের বরাত দিয়ে নিউ ইয়র্ক পোস্টের প্রতিবেদনে বলা হয়।

পরে তিনি লাগোর্ডিয়া কলেজ থেকে কলা ও বিজ্ঞানে এ্যাসোসিয়েট ডিগ্রি নেন বলেও এতে বলা হয়।

সংবাদ মাধ্যমে মোহাম্মদ-মাহফুজা দম্পতির খবর শুনে তাদের খোঁজ চলছে বলে ব্রঙ্কস প্রবাসী আইনজীবী মোহাম্মদ এন মজুমদার জানান।

তিনি বলেন, “ওই দম্পতির খোঁজ নিতে বাংলাদেশেও যোগাযোগের চেষ্টা করা হচ্ছে।”

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জেডেএম

উপরে