আপডেট : ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১৮:০৮

দিলেন ৯৪৪ দিরহাম, পেলেন লাখ ডলার!

বিডিটাইমস ডেস্ক
দিলেন ৯৪৪ দিরহাম, পেলেন লাখ ডলার!

ভাগ্য কার ঘরের দেয়ালে কখন উঁকি দেয় এটা বলা মুশকিল। কেউ সারাজীবন তপস্যা করেও জীবনে কিছু পাননা। আবার কারও কারও ক্ষেত্রে ভাগ্য নামের সোনার হরিণটি মনের অজান্তে ধরা দেয় নিমিষেই।

এমনি ভাগ্যবান সংযুক্ত আরব আমিরাতের (ইউএই) আবুধাবিতে কর্মরত বাংলাদেশি প্রবাসী সালাউদ্দিন মোহাম্মদ ইসহাক।প্রথমে নিজের কানকে বিশ্বাস করতে পারেননি। কারণ ৯৪৪ দিরহামের বিনিময়ে এক লাখ ডলার জিতে নিয়েছেন  তিনি।

ফোনে এক লাখ ডলার পুরস্কার পাওয়ার খবরটাকে ভুয়া মনে করে ইসহাক ফোন রেখে ঘুমিয়ে পড়েন। তারপর আর ফোনই ধরেননি তিনি। কিন্তু ইউএই এক্সচেঞ্জের কর্মকর্তারা যখন মুসাফাহ শিল্প এলাকায় শ্রমিক আবাসনে অবস্থিত তার ঘরে এসে খবরটা দিলেন, তখন ভাষা হারিয়ে ফেলেন ইসহাক।

বলেন তিনি ‘এটা আমার কাছে স্বপ্নের মতো মনে হচ্ছিল’। তবে ইউএই এক্সচেঞ্জের কর্মকর্তারা তাকে আশ্বস্ত করেন, যে তিনি আসলেই এক লাখ ডলার জিতেছেন।

চট্টগ্রামের বাসিন্দা ইসহাক প্রায় ১২ বছর আগে আবুধাবিতে যান। সেখানে তিনি এয়ার কন্ডিশনের টেকনিশিয়ান হিসেবে কাজ করেন। পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম সদস্য ইসহাকের আয়েই তার স্ত্রী, সন্তান, মা, ভাই-বোনদের একমাত্র অবলম্বন।

গত বছর ইউএই এক্সচেঞ্জের ‘অর্থ পাঠান-ডলার জিতুন’ কর্মসূচি চলাকালে বেশ কয়েকবার ইসহাক বাংলাদেশে ভাইদের কাছে টাকা পাঠান। এসবের মধ্যে ৯৪৪ দিরহাম পাঠানোর ঘটনায় এক লাখ ডলার জেতেন তিনি। দুবাই ও শারজায় ইউএই এক্সচেঞ্জ অফিসে অনুষ্ঠিত ড্রয়ের মাধ্যমে তিনি এ পুরস্কার জেতেন। পুরস্কারের অর্থ দিয়ে তিনি ব্যবসা করতে চান।

তিনি জানান, ‘আমার স্বপ্ন, চট্টগ্রামে নিজের এলাকায় আমি একটা বাড়ি করব। এলাকার নিঃস্ব লোকজনকে সহায়তাও করতে চাই।’ তবে সবার আগে আবুধাবিতে বন্ধু আর সহকর্মীদের সঙ্গে পুরস্কারপ্রাপ্তির আনন্দটা ভাগাভাগি করতে চান ইসহাক। চলছে সেই পরিকল্পনা।

জানা গেছে, ইউএই এক্সচেঞ্জের ওই শীতকালীন কর্মসূচিতে আরো পাঁচজনকে ১০ হাজার ডলার করে এবং ৫০ জনকে এক হাজার ডলার করে পুরস্কার দেওয়া হয়েছে।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/আরকে 

উপরে