আপডেট : ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১৬:৫৫

‘ফালতু’ ফাতেমাকে নিয়ে ভাবনা নেই কারা কর্তৃপক্ষের

অনলাইন ডেস্ক
‘ফালতু’ ফাতেমাকে নিয়ে ভাবনা নেই কারা কর্তৃপক্ষের

দুর্নীতি মামলায় কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে সেবা দেওয়ার জন্য পুরান ঢাকার নাজিমুদ্দীন রোডের পুরনো কারাগারে তাঁর সঙ্গে রয়েছেন ব্যক্তিগত গৃহকর্মী ফাতেমা বেগম। তবে কারাগারে ফাতেমার ‘স্ট্যাটাস’ কী তা কারাগারের একাধিক কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলেও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

ফাতেমার সঙ্গে কোনো আত্মীয়-স্বজন দেখা করতে চাইলে তা পারবে কি না কিংবা ফাতেমা যদি বেরিয়ে আসতে চান তা পারবেন কি না—এসব প্রশ্নের সুনির্দিষ্ট উত্তর মেলেনি কোনো কারা কর্মকর্তার কাছ থেকে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে এক কারা কর্মকর্তা বলেন, “একজন ডিভিশনপ্রাপ্ত বন্দি তাঁর কাজকর্ম করে দেওয়ার জন্য আরেকজনের সহযোগিতা পেয়ে থাকেন। যে সহযোগিতা করে সেও একজন বন্দি। তাকে কারাগারের ভাষায় ‘ফালতু’ বলা হয়। খালেদা জিয়ার ক্ষেত্রে পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে কোনো বন্দি না থাকায় তাঁকে ‘ফালতু’ হিসেবে কাউকে দেওয়া যায়নি। আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী তাঁর ব্যক্তিগত কর্মচারী ফাতেমাকে দেওয়া হয়েছে।”

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘ফাতেমা তো বন্দি নয়। তার বাইরে যাওয়ার ক্ষেত্রে কোনো সমস্যা থাকার কথা নয়। ফাতেমা কারাগারে আসার পর তার সঙ্গে কেউ দেখা করতে আসেনি। এ ছাড়া ফাতেমাও বাইরে যাওয়ার কথা বলেনি। যে কারণে আমরাও এ বিষয়টি নিয়ে ভাবছি না। যদি বিষয়টি সামনে আসে তাহলে আদালতের শরণাপন্ন হব। আদালত যে নির্দেশনা দেবেন সেই অনুযায়ী তার ব্যবস্থা হবে।’

অন্য এক কারা কর্মকর্তা জানান, কারাবিধি অনুযায়ী কোনো বন্দির জন্য বাইরে থেকে লোক নেওয়ার সুযোগ রয়েছে। তবে তাকে স্বেচ্ছা কারাবন্দি হতে হবে। ফাতেমাকেও স্বেচ্ছায় কারাবন্দি হিসেবেই খালেদা জিয়ার সেবা করার সুযোগ দেওয়া হয়েছে।’ স্বেচ্ছা কারাবন্দিরা কী কী সুবিধা পায় সে বিষয়ে জানতে চাইলে এই কর্মকর্তা তা এড়িয়ে যান।

এসব বিষয়ে জানতে চাইলে অতিরিক্ত কারা মহাপরিদর্শক কর্নেল ইকবাল হাসান বলেন, ‘এসব বিষয় নিয়ে আমি কোনো কথা বলতে চাই না।’

খালেদা জিয়ার সেবা করার জন্য ফাতেমাকে কারাগারে নিয়ে যাওয়ার বিষয়টি বেশ আলোচিত। গত সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন, খালেদা জিয়ার গৃহকর্মী ফাতেমা শুধু এ কারাগারেই নয়, এর আগেও তাঁর সঙ্গে বিশেষ কারাগারে ছিলেন। এ তথ্য এত দিন প্রকাশিত হয়নি।

বিষয়টি সম্পর্কে খোঁজ নিতে গিয়ে দেখা গেছে, ফাতেমা ১৫ বছরের বেশি সময় ধরে খালেদা জিয়ার বাড়িতে একনিষ্ঠভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। বাসায় তো বটেই, খালেদা জিয়া বিদেশে গেলেও ফাতেমাকে নিয়ে যেতেন বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইংয়ের কর্মকর্তা শায়রুল কবীর খান বলেন, ‘ম্যাডামের (খালেদা জিয়া) খুবই আস্থাভাজন একজন মানুষ ফাতেমা। তিনি দীর্ঘদিন ধরে ম্যাডামের সেবা করছেন।’

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ৩৫ বছর বয়সী ফাতেমা খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত কাজগুলো করেন। ফাতেমা মা-বাবার সঙ্গে রাজধানীর শাহজাহানপুরে থাকতেন। তাঁর স্বামী ও এক ছেলে রয়েছে। বর্তমানে তাঁর কিশোর ছেলে ফাতেমার মা-বাবার সঙ্গে শাহজাহানপুর এলাকাতেই থাকে।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে