আপডেট : ২০ অক্টোবর, ২০১৭ ১৯:২১

শুধু কি শিক্ষিকাই ক্লাসে ঘুমান?

অনলাইন ডেস্ক
শুধু কি শিক্ষিকাই ক্লাসে ঘুমান?

বুধবার সিলেটের জকিগঞ্জের একজন স্কুল শিক্ষিকার ছবি ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে যায়। এতে দেখা যায় ক্লাসে শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা চলছে। আর একজন শিক্ষিকা চেয়ারে বসে ঘুমাচ্ছেন। জকিগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান ইকবাল আহমদ চৌধুরী ওই স্কুলে পরীক্ষা পরিদর্শনে গিয়ে এ দৃশ্য দেখতে পান। এরপর ঘুমন্ত অবস্থায় শিক্ষিকার ছবিটি ফেসবুকে ছড়িয়ে দেন তিনি।

এনিয়ে দুদিন ধরেই চলছে আলোচনা-সমালোচনা। কেউ কেউ শিক্ষিকার সমালোচনা করলেও এমন একটি ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ার নৈতিকতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই।

সিলেট জেলা যুবলীগের সভাপতি শামীম আহমদও এই কাজের বিরোধীতা করে ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছেন। তার লিখার অংশ বিশেষ তুলে ধরা হল-

“প্রমান করা উচিৎ যে – আপনী একজন দায়িত্ববান উপজেলা চেয়ারম্যান আপনি যে কাজ করেছেন সেটি বিবেক বিবর্জিত মানুষেরর কাজ। একজন উপজেলা চেয়ারম্যান হাজার হাজার মানুষের প্রতিনিধি – সবার মান সম্মান রক্ষনাবেক্ষনের দায়িত্ব আপনার হাতে। আমার মতে আপনি সেখানে ফেল করেছেন। তাই যে এ পোষ্টটি ছেড়েছেন সেটা ডিলিট করে প্রমান করা উচিৎ যে – আপনি একজন দায়িত্ববান চেয়ারম্যান।”

এদিকে শিক্ষিকার স্বামী সুবিন​য় মালিক তার ফেসবুকে জানান ,আমার সহধর্মিণী তিন-চার দিন যাবৎ অসুস্থ। দায়িত্ববোধ হতে নিজের শারীরিক খারাপ পরিস্থিতি নিয়েও স্কুলে যাচ্ছে। আমি নিষেধ করেছি স্কুলের না গিয়ে ছুটি নেয়ার জন্য। আজ সে স্কুলে যাওয়ার যাওয়ার পর হঠাৎ মাথা ব্যাথা আর শারীরিক ক্লান্তিতে নিজের অজান্তে পরীক্ষার কক্ষে টেবিলে মাথা রাখেন। হঠাৎ করে জকিগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান সাহেব স্কুল ভিজিটের জন্য যান এবং দেখতে পান উনি টেবিলে মাথা রেখে ঘুমে। এরপর জকিগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান সাহেব উনার সহকারি দিয়ে ছবি তুলান এবং তার অন্যতম সহযোগী জামাতি কে এম মামুন নামের এক সাংবাদিক দিয়ে ছবিগুলো ফেসবুকে ভাইরাল করান।

যা অত্যন্ত দুঃখজনক ও নিন্দনীয়।প্রয়োজনে আমার সহধর্মিণীর কলিকদের কাছ থেকে জেনে নিতে পারতেন উনি প্রতিদিন এরকম করেন না কি আসলেই অসুস্থ। অসুস্থতা থেকেও রেহাই পাচ্ছে না একজন শিক্ষিকা।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে