আপডেট : ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ২০:২০

ফেসবুকে এক মিডিয়াকর্মীর সুইসাইড নোটে তোলপাড়!

বিডিটাইমস ডেস্ক
ফেসবুকে এক মিডিয়াকর্মীর সুইসাইড নোটে তোলপাড়!

কিছুক্ষন আগেই একটি সুইসাইড নোটের সূত্র পাওয়া গেছে কালেরকন্ঠের সাংবাদিক দাউদ হোসাইন রনির ফেসবুক ওয়াল থেকে। তিনি তার ফেসবুক ওয়ালে দাবি করেন আল মাসুদ নামে এক মিডিয়াকর্মী তার ইনবক্সে ওই সুইসাইড নোটটি পোস্ট করেছে এবং এর পরপরই ওই ব্যাক্তি অফলাইনে চলে যায়।

রনি তার স্ট্যাটাসের কমেন্ট বক্সে সুইসাইড নোটটি পোস্টও করেন। এসময় কমেন্টে অনেকে আল মাসুদকে মাছরাঙা টেলিভিশনের সাংবাদিক হিসেবে চিহ্নিত করেন।

যদিও বিডিটাইমস থেকে মাছরাঙা টেলিভিশনে যোগাযোগ করা হলে তারা জানায়, এ নামে তাদের হাউসে কোন সাংবাদিক নেই। তবে অনুসন্ধান করে আল মাসুদের ফেসবুক ওয়ালে গিয়েও সেই সুইসাইড নোট-এর সন্ধান পাওয়া যায়।

মাসুদের ফেসবুক ওয়াল থেকে তার সম্পর্কে জানা যায় তিনি একজন ফিল্ম মেকার। রাজশাহী ইউনিভার্সিটির সাবেক ছাত্র।

সুইসাইড নোটটিকে ‘গল্প নয়, জীবনের কথা’ বলে তিনি শিরোনাম দিয়েছেন।

তিনি তার দীর্ঘ স্ট্যাটাসের শুরুতে লিখেন, ‘আমার মৃত্যু আমি নিজ হাতে রচনা করেছি। আমি তেমন বিখ্যাত লোক নই। হয়ত অনেকে জানবেই না। জানলে কেউ কেউ দুঃখ পাবে, কেউ আফসোস করবে। হতাশ হবে। পাওনাদাররা গালি দিবে, লাশ মাটি চাপা দিতে ঝামেলা করবে। সবচেয়ে বেশী কষ্ট পাবে আমার মা। সাথে সাথে সেও মারা যেতে পারে। মা‘রা সব সময় নষ্ট ছেলেকে বেশী ভালোবাসে।’

আবেগঘন এমন স্ট্যাটাসকে ঘিরে মিডিয়া অঙ্গনে কিছুক্ষনের জন্য শোরগোল পড়ে যায়। যদিও শেষ মহুর্তে দাউদ হোসাইন রনি বিডিটাইমসকে নিশ্চিত করেন যে, আল মাসুদের সন্ধান পাওয়া গেছে তিনি সুস্থ্য আছেন।

মূলত পারিবারিক অশান্তি ও সাময়িক অভাবকে কেন্দ্র করে তার মধ্যে একধরণের হতাশা কাজ করে থাকতে পারে বলে অনেকে মত প্রকাশ করে। যদিও তার এমন কান্ডে অনেকে ক্ষোভও প্রকাশ করেছে।

প্রতিবেদনটি লেখা পর্যন্ত ফোনে মাসুদকে পাওয়া যায়নি।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/মাঝি

উপরে