আপডেট : ১৬ নভেম্বর, ২০১৮ ১১:৪২

২ গ্রামবাসীর সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ১০

অনলাইন ডেস্ক
২ গ্রামবাসীর সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ১০

নরসিংদীর রায়পুরায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে তোফায়েল হোসেন (১৮) নামে এক যুবক মারা গেছেন। এসময় আহত হয়েছেন কমপক্ষে আরও ১০ জন।  আহতদের মধ্যে গুলিবিদ্ধ সুমন মিয়া (২৬), মামুন মিয়াসহ (২৫) তিনজনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
শুক্রবার সকালে রায়পুরা উপজেলার চরাঞ্চলের বাঁশগাড়ী গ্রামে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। রায়পুরা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোজাফফর হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বাঁশগাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা সিরাজুল হক এবং একই ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা শাহেদ সরকারের সমর্থকদের বিরোধ চলে আসছিল। গত ৩ মে দুর্বৃত্তদের গুলিতে নিহত হন ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সিরাজুল হক। এর কিছুদিন পর হঠাৎ অসুস্থ হয়ে মারা যান শাহেদ সরকার। 
সিরাজুল হক হত্যার পর থেকে প্রতিপক্ষের ভয়ে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যায় শাহেদের সমর্থকরা। দীর্ঘদিন পলাতক থাকার পর শুক্রবার সকালে শাহেদ সমর্থকরা এলাকায় ফিরলে প্রতিপক্ষ সিরাজ সমর্থকরা আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে তাদের উপর হামলা চালায়। 

এসময় দুইপক্ষের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়লে গুলিবিদ্ধসহ কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়।
তাদের মধ্যে চারজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় নরসিংদী সদর হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসকরা তোফায়েল হোসেনকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে গুরুতর আহত তিনজনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। 

রায়পুরা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোজাফফর হোসেন বলেন, ‘খবর পেয়ে রায়পুরা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। নিহতের লাশ নরসিংদী সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।’

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/রাসেল

উপরে