আপডেট : ১৬ আগস্ট, ২০১৮ ১৫:৪২

দুই রুমের ফ্ল্যাট পাচ্ছে বস্তিতে থাকা পরিবার!

অনলাইন ডেস্ক
দুই রুমের ফ্ল্যাট পাচ্ছে বস্তিতে থাকা পরিবার!

ঢাকাসহ দেশের অন্যান্য নগরীতে বসবাসকারী বস্তিবাসী একেকটি পরিবারের জন্য দুই রুমের ফ্ল্যাট দেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে সরকার। বস্তিবাসীদের জন্য ‘জাতীয় নগর দারিদ্র্য হ্রাসকরণ কর্মসূচি’ প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে এবং তা জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় অনুমোদিত হয়েছে। 

পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের সূত্র থেকে জানা যায়, এ প্রকল্প বাস্তবায়নে সরকারের মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ৮২৬ কোটি ১২ লাখ টাকা। এর মধ্যে সরকারের নিজস্ব তহবিল থেকে যোগান দেওয়া হবে ১২৮ কোটি ১৮ লাখ টাকা এবং প্রকল্প সাহায্য বাবদ পাওয়া যাবে ৬৯৭ কোটি ৯৪ লাখ টাকা। প্রকল্প সহায়তা বাবদ প্রত্যাশিত ৬৯৭ কোটি ৯৪ লাখ টাকা ডিএফআইডি ও ইউএনডিপি’র কাছ থেকে অনুদান হিসেবে পাওয়া যাবে।

মন্ত্রণালয় সূত্র আরও জানা যায়, পাঁচ হাজার পরিবারের জন্য পৌরসভা প্রদত্ত জমিতে প্রতিটি পরিবারের জন্য দুই রুমের ফ্ল্যাট নির্মাণ করা হবে। ফ্ল্যাটগুলো শুধুমাত্র হতদরিদ্র জনগোষ্ঠীদের মধ্যে বরাদ্দ দেওয়া হবে। অন্যদিকে নিম্ন আয়ের ১৫ হাজার পরিবারকে নিয়ে কমিউনিটি হাউজিং ডেভেলপমেন্ট ফান্ড গঠন করে বিনাসুদে দীর্ঘমেয়াদি গৃহায়ণ ঋণ সুবিধা দেওয়া হবে।

২০২৩ সালের ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হওয়ার কথা রয়েছে। দেশের আটটি বিভাগে অবস্থিত ৩৬টি জেলার পৌরসভা ও চারটি সিটি করপোরেশন এলাকায় স্থানীয় সরকার বিভাগ এই প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে। 

উল্লেখ্য, গত বছরের ২৫ এপ্রিল একনেকের সভায় প্রথম এ প্রকল্প উপস্থাপন করা হয়। ঐ সভায় বলা হয় ‘নগরীর বস্তিবাসীদের লিগ্যাল কোনও জমি না থাকায় বস্তিতে ফুটপাত, ড্রেন, নলকূপ, স্যানিটারি ল্যাট্রিন নির্মাণ প্রকল্প গ্রহণ যুক্তিযুক্ত নয়। ফলে আলোচ্য প্রকল্পটির উদ্দেশ্য পরিবর্তন করে স্বল্প আয়ের লোকদের জন্য এক রুম বা দেড় রুমের ফ্ল্যাট নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

উপরে