আপডেট : ১৩ মার্চ, ২০১৮ ১৮:৩৪

বিমান বিধ্বস্ত: আহতদের না দেখেই হোটেলে বিমানমন্ত্রী!

অনলাইন ডেস্ক
বিমান বিধ্বস্ত: আহতদের না দেখেই হোটেলে বিমানমন্ত্রী!

কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইউএস-বাংলার বিমান বিধ্বস্ত স্থল পরিদর্শন করতে নেপালে গেছেন বাংলাদেশের বিমানমন্ত্রী এ কে এম শাজাহান কামাল। বেলা চারটায় দূর থেকে ঘটনাস্থল দেখে তিনি কাঠমান্ডুর ইয়ক অ্যান্ড ইয়েপি হোটেলে গিয়ে উঠেছেন বলে জানা গেছে। টেলিফোনে তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন কাঠমান্ডুস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের ফার্স্ট সেক্রেটারি মাহবুবুর রহমান।

বিমানমন্ত্রী এ কে এম শাজাহান কামাল কি কারণে জীবিত চিকিৎসাধীনদের না দেখে হোটেলে গিয়ে উঠেছেন সেটা জানা না গেলেও এ নিয়ে চলছে সমালোচনা।

নেপালে বসবাসরত বাংলাদেশি আশরাফুর ইসলাম বলেন, ‘এ কেমন মন্ত্রী! এসেছেন যাদের জন্যে, তাদের কাছে না গিয়ে আগে গিয়ে উঠেছেন তারকা হোটেলে।’

জানা গেছে, মন্ত্রীর সঙ্গে রয়েছেন বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) পরিচালনা ও পরিকল্পনা সদস্য এয়ার কমোডর মোস্তাফিজুর রহমানসহ বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা। দুর্ঘটনা পরবর্তী সার্বিক বিষয়ে করণীয় নির্ধারণ করবেন তারা।

মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১ টায় হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে বিমানের একটি ফ্লাইটে কাঠমান্ডু যান তারা।

উল্লেখ্য, নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বাংলাদেশের বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় পাইলট, ক্রুসহ বাংলাদেশি ৩৬ জনের মধ্যে ২৬ জন মারা গেছেন। বাকি ১০ জন নেপালের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। এ তথ্য জানিয়েছেন বাংলাদেশের বেসরকারি বিমান সংস্থা ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের জিএম (মার্কেটিং সাপোর্ট অ্যান্ড পাবলিক রিলেশনস) কামরুল ইসলাম।

সোমবার নেপালের স্থানীয় সময় দুপুর ২ টা ২০ মিনিটে ৪ ক্রুসহ ৬৭ আরোহীবাহী বিমানটি বিধ্বস্ত হয়।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে