আপডেট : ২৪ নভেম্বর, ২০১৭ ১৩:০০

মায়ার জাদুকরের শেষ ইচ্ছা

অনলাইন ডেস্ক
মায়ার জাদুকরের শেষ ইচ্ছা

উপমহাদেশের প্রখ্যাত সুরকার, গীতিকার, বংশীবাদক ও লোকসংগীতশিল্পী বারী সিদ্দিকী আর নেই (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি শুক্রবার (২৪ নভেম্বর) দিবাগত রাত আড়াইটায় মৃত্যুবরণ করেন। প্রখ্যাত এ শিল্পীর মৃত্যুর খবর গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন তার ছেলে সাব্বির সিদ্দিকী।

গত কয়েকদিন ধরেই তিনি এ হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে ছিলেন। তার বয়স হয়েছিলো ৬৩ বছর। বারী সিদ্দিকীর দুটি কিডনি অকার্যকর হয়ে পড়েছিলো। এর পাশাপাশি তিনি বহুমূত্র রোগেও ভুগছিলেন। গত ১৭ই নভেম্বর রাতে তিনি হৃদরোগে আক্রান্ত হন। অচেতন অবস্থাতেই তাকে হাসপাতালে নেয়া হয়। এরপর তাকে দ্রুত নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) রাখা হয়েছিলো।

অশ্রুসিক্ত নয়নে বারী সিদ্দিকীর ছেলে সাব্বির সিদ্দিকী গণমাধ্যমকে জানান, বাবার কোনো চাওয়া অপূর্ণ নেই। তিনি বেঁচে থাকাকালীন সব ইচ্ছাই পূরণ করে গেছেন। মারা যাওয়ার আগে শুধু জানিয়েছিলেন তাকে যেন নেত্রকোনার চল্লিশা বাজারের তার নিজের বাউলবাড়িতে দাফন করা হয়। বাবার শেষ ইচ্ছা অনুযায়ী তাকে সেখানেই দাফন করা হবে।

সাব্বির সিদ্দিকী আরো জানান, শুক্রবার সকালে বাবার প্রথম নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে সকাল সাড়ে ৯টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ প্রাঙ্গণে। তারপর বাবার ৩২ বছরের কর্মস্থল বাংলাদেশ টেলিভিশন ভবনে সকাল সাড়ে ১০টায় দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। এরপর মরদেহ নেয়া হবে নেত্রকোনায়। নেত্রকোনা সরকারি কলেজ মাঠে বাদ আসর তৃতীয় নামাজে জানাজা শেষ তাকে তার নিজের বাউলবাড়িতে দাফন করা হবে।

সাব্বির সিদ্দিকী বলেন, বাবার জন্য সবাই দোয়া করবেন। আল্লাহ যেন তাকে বেহেশত নসিব করেন। আর কিছুই চাই না।

ছয় দিন লাইফ সাপোর্টে থাকার পর বারী সিদ্দিকী গত রাত ২টায় শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। এর আগে ২০১৬ সাল থেকে তিনি কিডনিজনিত এবং ডায়াবেটিসহ একাধিক রোগে ভুলছিলেন। গেল তিন বছরে তার হার্টে চারটি অপারেশন করানো হয়।

উপরে