আপডেট : ২৭ মার্চ, ২০১৬ ০৯:২১

আদালত অবমাননা; আবারও সুপ্রিমকোর্টে হাজির হলেন দুই মন্ত্রী

বিডিটাইমস ডেস্ক
আদালত অবমাননা; আবারও সুপ্রিমকোর্টে হাজির হলেন দুই মন্ত্রী
আদালত অবমাননার রুলের শুনানিতে আজ রোববার দুই মন্ত্রী সুপ্রিমকোর্টে হাজির হয়েছেন।

প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বে আপিল বিভাগের সাত সদস্যের বেঞ্চে এ শুনানি অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে গত ২০ মার্চ রুলের লিখিত জবাব দাখিলের নির্ধারিত দিন ছিল।

ওই দিন সকালে আদালতে হাজির হয়ে আইনজীবীর মাধ্যমে জবাব দাখিল করেন দুই মন্ত্রী। কিন্তু কামরুল ইসলামের জবাব দাখিলের ওপর আদালত সন্তুষ্ট না হওয়ায় ২৭ মার্চ খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম ও মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হককে আবারও সশরীরে হাজির হতে বলা হয়েছে।

ওই দিন কামরুল ইসলামের লিখিত জবাবে সঠিকভাবে ব্যাখ্যা উপস্থাপন করা হয়নি জানিয়ে আবারও তাকে তা দাখিলের নির্দেশ দেন প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বে সাত সদস্যের বেঞ্চ।

শুনানিতে আ ক ম মোজাম্মেল হকের পক্ষে অংশ নিয়েছিলেন ব্যারিস্টার রফিক-উল হক আর কামরুল ইসলামের পক্ষে ছিলেন আবদুল বাসেত মজুমদার।

প্রধান বিচারপতির সঙ্গে বেঞ্চে ছিলেন বিচারপতি আবদুল ওয়াহহাব মিয়া, বিচারপতি নাজমুন আরা সুলতানা, বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন, বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী, বিচারপতি নিজামুল হক নাসিম ও বিচারপতি মির্জা হোসেইন হায়দার।

গত ১৫ মার্চ খাদ্যমন্ত্রীর পক্ষে সময় আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত অবমাননার অভিযোগে আ ক ম মোজাম্মেল হক ও কামরুল ইসলামের শুনানির জন্য দিন ধার্য করে দেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

আদালত নিয়ে মন্তব্য করায় এরই মধ্যে দুই মন্ত্রী আইনজীবীর মাধ্যমে নিঃশর্ত ক্ষমার আবেদন করেছেন।

গত ৮ মার্চ খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম ও মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হককে ১৫ মার্চ সকাল ৯টায় সশরীরে আদালতে হাজির হতে নির্দেশ দেন আদালত। তবে খাদ্যমন্ত্রী দেশের বাইরে থাকায় সময়ের আবেদন করেন তাঁর আইনজীবী। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ২০ মার্চ নির্ধারণ করা হয়।

মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে মৃত্যুদণ্ডাদেশ পাওয়া মীর কাসেম আলীর আপিলের রায়কে কেন্দ্র করে প্রধান বিচারপতির বক্তব্যের সমালোচনা করে গত ৫ মার্চ রাজধানীতে এক সেমিনারে বক্তব্য দেন সরকারের দুই মন্ত্রী কামরুল ইসলাম ও আ ক ম মোজাম্মেল হক।
 
বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জেডএম
উপরে