আপডেট : ২৩ মার্চ, ২০১৬ ১৭:১৯

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটে থাকতে চায় ভারত

বিডিটাইমস ডেস্ক
বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটে থাকতে চায় ভারত

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটে বাংলাদেশের সঙ্গে থাকারা ইচ্ছা প্রকাশ করেছে প্রতিবেশী দেশ ভারত।

বুধবার ঢাকার গণভবন এবং দিল্লিতে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ভারতের ত্রিপুরা থেকে বাংলাদেশে ১০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানি এবং বাংলাদেশ থেকে ত্রিপুরায় ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথ রপ্তানি কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এই ইচ্ছা প্রকাশ করেন।

নরেন্দ্র মোদী বলেন, আমি আগেও বলেছি, মহাকাশেও আমাদের একসঙ্গে চলা উচিত। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটে ভারত বাংলাদেশের সঙ্গে এক সঙ্গে চলতে চায়। তিনি বলেছেন, আমরা দুই দেশ মিলে বিশ্বের সামনে একটি উদাহরণ তৈরি করছি- প্রতিবেশীর সঙ্গে কী ধরনের সম্পর্ক রাখতে হয়; আন্তঃনির্ভরশীল পৃথিবী বাস্তবায়নের পথ কোনটা হতে পারে।

বাংলাদেশের মুক্তিসংগ্রামের আগুনঝরা দিনগুলোর কথা স্মরণ করে ভারতের প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের সেই দুঃখের দিনগুলোতে যেমন ভারত এবং ভারতের জনগণ বাংলাদেশের পাশে থেকেছে, এখন বাংলাদেশ যেমন উন্নতির শিখরে আরোহণ করছে, তখনো ভারত তাদের পাশে রয়েছে। তিনি বলেন, প্রতিবেশীর সঙ্গে সম্পর্ক কেমন হবে তার দৃষ্টান্ত সৃষ্টি করে আমরা সমগ্র বিশ্বের সামনে অনন্য নজির স্থাপন করতে সমর্থ হয়েছি।

মোদি বলেন, বাংলাদেশ ত্রিপুরায় ব্যান্ডউইথ প্রদান করায় আমাদের পূর্বাঞ্চলের রাজ্যগুলো নতুনভাবে ডিজিটাল বিশ্বে সংযুক্ত হওয়ার সুযোগ পেয়েছে। ভারতের দুটি ইন্টারনেট গেটওয়ের একটি পশ্চিমাঞ্চলে এবং অপরটি দক্ষিণাঞ্চলে থাকায় পূর্বাঞ্চলের তরুণ সমাজ ডিজিটাল বিশ্বে প্রবেশের সুযোগ থেকে বঞ্চিত হচ্ছিল।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বাংলাদেশ সেই সুযোগ করে দিয়েছে বলে তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানান। পাশাপাশি বাংলাদেশের প্রয়োজনে আরও বেশি পরিমাণ বিদ্যুৎ সরবরাহে ভারত প্রস্তুত বলে আশ্বাস দেন।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ, বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী এবং ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার বক্তব্য দেন।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/আরকে 

উপরে