আপডেট : ১০ মার্চ, ২০১৬ ২১:৪০

২০১৮ সালের মধ্যে বিদ্যুৎ পাবে ১৫ লাখ নতুন গ্রাহক: পরিকল্পনামন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক
২০১৮ সালের মধ্যে বিদ্যুৎ পাবে ১৫ লাখ নতুন গ্রাহক: পরিকল্পনামন্ত্রী
দেশের অর্থনৈতিক কার্যক্রমের প্রসার এবং নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে গ্রামীণ বিদ্যুতায়ন স্কিমের আওতায় প্রায় ১৫ লাখ গ্রাহককে নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে সরকার বিদ্যুৎ খাতে একটি মেগা প্রকল্প চালু করেছে।
পরিকল্পনামন্ত্রী এ এইচ মে মুস্তফা কামাল বলেছেন, রূপকল্প-২০২১ বাস্তবায়নে গ্রামীণ জনগণের জীবনমানের উন্নয়নে সরকার দেশের সকল গ্রাম বিদ্যুৎ সুবিধার আওতায় আনতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ।
তিনি বলেন, বিদ্যুৎ সংযোগের মাধ্যমে গ্রামীণ এলাকায় ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্পের প্রসার ঘটবে, যা গ্রামীণ জনগণের আরো কর্মসংস্থান সৃষ্টি করবে।
২০১৮ সালের ডিসেম্বর নাগাদ দেশব্যাপী ৭৭টি পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির মাধ্যমে গ্রামীণ বিদ্যুতায়ন প্রকল্প সম্প্রসারণের দায়িত্ব পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের (আরইবি) ওপর ন্যস্ত। সরকার রাজকোষ থেকে প্রকল্পের পুরো ব্যয় ৬ হাজার ৯১৫ কোটি টাকা সরবরাহ করবে।
পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ২০২১ সাল নাগাদ দেশের সকল জনগণের বিদ্যুৎ সংযোগ নিশ্চিত করার কার্যক্রম জোরদারে সরকার সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিয়েছে।
আরইবি সম্প্রতি সম্ভাব্যতা যাচাই করে দেখেছে, দেশের সকল লোককে বিদ্যুৎ সুবিধার আওতায় আনতে ৪ লাখ ৪২ হাজার কিলোমিটার বিদ্যুৎ লাইন প্রয়োজন।
দ্বীপ, পার্বত্য, পানির এলাকায় ও দুর্গম এলাকার মতো অঞ্চলে ভৌগোলিক কারণে বিদ্যুৎ সুবিধার আওতায় এসেছে প্রায় ১২ শতাংশ।
আরইবি অচিরেই ২ লাখ ৯৫ হাজার বিদ্যুৎ লাইন স্থাপন করা হচ্ছে।
মুস্তফা কামাল বলেন, আগামী ২ বছরের মধ্যেই বিদ্যুৎ সরবরাহ ও বিতরণ লাইন নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হবে।
প্রকল্পের অধীনে প্রায় ৪৪ হাজার কিলোমিটার ৩৩ কেভি অথবা কম ভোল্টেজের লাইন স্থাপন করা হবে এবং ৩৩/১১ কেভি ক্ষমতার ৮৩টি বিদ্যুৎ উপকেন্দ্র নির্মাণ করা হবে। বর্তমান ৩৫টি বিদ্যুৎ উপকেন্দ্র সম্প্রসারণ করা হবে, ১৫ লাখ বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হবে এবং ৩৫.৭০ একর ভূমি অধিগ্রহণ করা হবে।
উপরে