আপডেট : ১০ মার্চ, ২০১৬ ১৯:০২

বিমানবন্দরে অফিস করবেন মন্ত্রী ও সচিব

নিজস্ব প্রতিবেদক
বিমানবন্দরে অফিস করবেন মন্ত্রী ও সচিব

নিরাপত্তা ব্যবস্থার উন্নয়ন ত্বরান্বিত করতে ৩১ মার্চ পর্যন্ত দিনের যেকোন সময় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অফিস করবেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন ও সংশ্লিষ্ট সচিবগণ।

বৃহস্পতিবার শাহজালাল বিমানবন্দরে অনুষ্ঠিত এক জরুরী সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন।

সভায় জানানো হয় যুক্তরাজ্যের ঢাকাস্থ হাইকমিশন, এভিয়েশন টিম এবং নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞদের পরামর্শক্রমে বিমান বন্দরের নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে ঢেলে সাজানো হচ্ছে।
নিরাপত্তা ব্যবস্থার আধুনিকায়নে স্পেশাল টিম গঠন করা হয়েছে। আধুনিক সরঞ্জামাদি সংগ্রহে গত ৯ মার্চ প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত একনেকের সভায় ৯০ কোটি টাকার একটি প্রকল্প পাস হয়েছে। বাংলাদেশের গৃহীত ব্যবস্থাদি সন্তোষজনক বলে বৃটিশ হাইকমিশন জানিয়েছিলো।

এ পরিপ্রেক্ষিতে এ ধরনের সাময়িক নিষেধাজ্ঞা অনাকাংখিত।বিমান বন্দরের নিরাপত্তা নিশ্চিত এবং গ্রাউন্ড হ্যান্ডলিং ব্যবস্থার উন্নয়নে সিভিল এভিয়েশন ও বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স আরও নিবিড়ভাবে কাজ করবে এবং মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে পুরো কর্মকান্ডকে মনিটরিং করা হবে।
সভায় আশাবাদ ব্যক্ত করা হয়, সম্মত কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়নের মাধ্যমে দ্রুতই যুক্তরাজ্যের অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার হবে এবং দুদেশের সম্পর্ক আরও উষ্ণ ও গভীর হবে।

এ সভায় বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন সচিব খোরশেদ আলম চৌধুরী, সিভিল এভিয়েশনের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল সানাউল হক, বিমান বাংলাদেশ এয়ার লাইন্সের ভারপ্রাপ্ত এমডি আসাদুজ্জামানসহ মন্ত্রণালয়, সিভিল এভিয়েশন এবং বিমান বাংলাদেশের ঊধ্বর্তন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/আরকে  

উপরে