আপডেট : ৮ মার্চ, ২০১৬ ১৩:২৪

জনগণের আকাঙ্ক্ষার বাস্তবায়ন হয়েছে-ইমরান

অনলাইন ডেস্ক
জনগণের আকাঙ্ক্ষার বাস্তবায়ন হয়েছে-ইমরান

একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধে জামায়াতে ইসলামীর নির্বাহী পরিষদের সদস্য মীর কাসেম আলীকে ট্রাইব্যুনালের দেয়া মৃত্যুদণ্ডের রায় বহাল রাখায় আনন্দ মিছিল বের করেছে গণজাগরণ মঞ্চ।  

মঙ্গলবার সকাল সোয়া ১০টার দিকে শাহবাগ থেকে ওই আনন্দ মিছিল শুরু হয়। মিছিলটি টিএসসি ঘুরে আবার শাহবাগে ফিরে যায়। এসময় শাহবাগে আনন্দ-উল্লাস করেন গণজাগরণ মঞ্চের নেতাকর্মীরা।   এর আগে সকাল থেকে শাহবাগে  ভিড় করতে শরু করে গণজাগরণ মঞ্চের সমর্থকরা।

মীর কাসেমের ফাঁসির রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করে গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকার বলেন, জনগণের আকাঙ্ক্ষার বাস্তবায়ন হয়েছে। এই রায়ের মাধ্যমে ধনকুবের যুদ্ধাপরাধী মীর কাসেমকে রক্ষায় জন্য দেশবিরোধী অপশক্তির সব ষড়যন্ত্রের পরাজয় হয়েছে। দেশবিরোধী শক্তির ষড়যন্ত্রের বিপরীতে বাংলাদেশের মুক্তিকামী জনতার বিজয় অর্জিত হয়েছে, প্রমাণিত হয়েছে ন্যায্য আন্দোলনের শক্তির কাছে কোনো ষড়যন্ত্রই বাধা হতে পারে না। আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার পথে এই রায় মাইলফলক হয়ে থাকবে।

তিনি আরও বলেন, জনগণের পক্ষে এই রায় প্রদান করে আদালত প্রমাণ করেছেন, তারা আপস করেননি বরং ন্যায়বিচার নিশ্চিত করে যুদ্ধাপরাধী অপশক্তির ষড়যন্ত্রের যবনিকাপাত ঘটিয়েছেন। এই রায়ের মাধ্যমে ১৬ কোটি মানুষের বিজয় হয়েছে। এ রায় দ্রুত কার্যকরের দাবিও জানান তিনি।   উল্লেখ্য, একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধে জামায়াতে ইসলামীর নির্বাহী পরিষদের সদস্য মীর কাসেম আলীকে ট্রাইব্যুনালের দেয়া মৃত্যুদণ্ড বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ।

মঙ্গলবার সকালে প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহার নেতৃত্বাধীন পাঁচ সদস্যের বেঞ্চ এক মিনিটে রায়ের সংক্ষিপ্তসার জানিয়ে দেন। বেঞ্চের অপর সদস্যরা হচ্ছেন- বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন, বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী, বিচারপতি মির্জা হোসেইন হায়দার ও বিচারপতি মো. বজলুর রহমান।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জেডএম

 

উপরে