আপডেট : ৪ মার্চ, ২০১৬ ১৪:০০

উড়াল সড়কে উঠবে গাড়ি, শুরু হবে মেট্রোরেলের কাজ

বিডিটাইমস ডেস্ক
উড়াল সড়কে উঠবে গাড়ি, শুরু হবে মেট্রোরেলের কাজ

মার্চের শেষ সপ্তাহে স্বপ্নের মেট্রোরেলের কাজ শুরু হবে, আর একই সময়ে সাতরাস্তা দিয়ে গাড়ি নিয়ে ফ্লাইওভারে উঠবেন নগরবাসী।
মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভারের সাতরাস্তা থেকে হলি ফ্যামিলি হাসপাতাল পর্যন্ত অংশের কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। এখন চলছে ফিনিশিং।

প্রকল্প পরিচালক নাজমুল আলম  জানান, মার্চের শেষ দিকে সব ধরনের যান চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হবে ফ্লাইওভারের এ অংশটি।
তিনি আরও জানান, ২০ মার্চের মধ্যেই তাদের কাজ শেষ হয়ে যাবে।

সরেজমিনে সাতরাস্তা থেকে মগবাজারের হলি ফ্যামিলি হাসপাতাল পর্যন্ত ঘুরে দেখা গেছে, ফ্লাইওভারের ঢালাই প্রায় শেষ করে নেওয়া হয়েছে। বাকি আছে শুধু লাইটিং আর ফিনিশিং। এ কাজ চলতি সপ্তাহে পুরোপুরি শেষ হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্ট নির্মাণ শ্রমিকরা।

প্রকল্প পরিচালক আরও জানান, ফ্লাইওভারের সাতরাস্তা থেকে হলি ফ্যামিলি হাসপাতাল পর্যন্ত প্রথম ধাপ মার্চের মধ্যে চালু করার প্রস্তুতি তাদের শেষ পর্যায়ে।

তিনটি ধাপের মধ্যে আরেকটি ইস্কাটন থেকে মৌচাক পর্যন্ত অংশের কাজ শেষ হয়েছে ৮৫ শতাংশ। যা আগামী জুন-জুলাইয়ে যান চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হবে।

আর শেষ ধাপ রামপুরা থেকে মালিবাগ-মৌচাক হয়ে রাজারবাগ-শান্তিনগরের কাজের মাত্র ৪৫ শতাংশ শেষ হয়েছে। যা এ বছরের ডিসেম্বরে চালু করার আশাবাদ প্রকল্প কর্মকর্তাদের।

২০১৩ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভারের নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেছিলেন। সমন্বিত এ ফ্লাইওভারের কাজ শেষ হওয়ার কথা ছিলো ২০১৪ সালের মধ্যে। পরে ২০১৫ সালের ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে কাজ শেষ করে চালু করার ঘোষণা দেওয়া হয়েছিলো। কিন্তু তাও হয়নি। এর মধ্যে ফ্লাইওভারটির ব্যয় বেড়েছে কয়েকগুণ। আর এ সড়কে চলাচলকারী জনসাধারণের দুর্ভোগও সীমা ছাড়িয়েছে।

শেষ পর্যন্ত সাতরাস্তা থেকে হলি ফ্যামিলি হাসপাতাল পর্যন্ত ফ্লাইওভারের প্রথম অংশ মার্চেই খুলে দেওয়ার মধ্য দিয়েই এমন আশাবাদে কিছুটা দুর্ভোগ ভুলে যাওয়ার আশাবাদ নগরবাসীরও।

প্রকল্পটি বাস্তবায়নের দায়িত্বে রয়েছে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতর (এলজিইডি)।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সচিব আবদুল মালেক জানিয়েছেন, মার্চের মধ্যে ফ্লাইওভারের কাজ শেষ করার সময়সীমা দেওয়া হয়েছে। এরপর এটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদ্বোধন করবেন।

এদিকে মার্চের শেষ সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রী সরকারের ‘ড্রিম প্রজেক্ট’ মেট্রোরেলেরও নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করবেন বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তবে তারিখটি ঠিক ২৬ মার্চ কি-না তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। প্রধানমন্ত্রী একই সঙ্গে মেট্রোরেলের নির্মাণ কাজ ও ফ্লাইওভারের উদ্বোধন করতে পারেন বলে একটি ঊর্দ্ধতন সূত্র জানিয়েছে।

উত্তরা থেকে মতিঝিল পর্যন্ত মেট্রোরেলের প্রথম কাজ শুরু হবে আগারগাঁও ও মিরপুর থেকে। উড়ালপথে এর দৈর্ঘ্য হবে ২০ দশমিক ১ কিলোমিটার। উত্তরা ৩য় ফেজ-পল্লবী-রোকেয়া সরণির পশ্চিম পাশ দিয়ে খামারবাড়ী হয়ে ফার্মগেট- হোটেল  সোনারগাঁও- শাহবাগ- টিএসসি- দোয়েল চত্বর-তোপখানা রোড-বাংলাদেশ ব্যাংক পর্যন্ত যাবে মেট্রোরেল।

রোলিং স্টক হিসেবে মেট্রোরেল থাকবে ২৪ সেটের। আর প্রত্যেক সেটে ৬টি কার থাকবে। মেট্রোরেলে সর্বোচ্চ গতিসীমা হবে ঘণ্টায় ১০০ কিলোমিটার।

 

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/আইএম

উপরে