আপডেট : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১৫:৫৮

আমি নির্দোষ, আমার সম্মান ফিরিয়ে দিন: আবুল হোসেন

বিডিটাইমস ডেস্ক
আমি নির্দোষ, আমার সম্মান ফিরিয়ে দিন: আবুল হোসেন

পদ্মা সেতু প্রকল্পে যেসব পত্রিকা ও সাংবাদিক অসত্য খবর পরিবেশন করে আমার ক্ষতি করেছেন তারা যেন সত্য প্রকাশের মাধ্যমে আমার সুনাম ফিরিয়ে দেন, গণমাধ্যমের কাছে এ আহ্বান জানিয়েছেন সাবেক মন্ত্রী সৈয়দ আবুল হোসেন।

রবিবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে সৈয়দ আবুল হোসেন এ আহ্বান জানান।

তিনি হলুদ সাংবাদিকতার স্বীকার উল্লেখ করে আবুল হোসেন বলেন, পদ্মা সেতুসহ নানা বিষয়ে আমাকে জড়িয়ে যে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে তা যে একেবারে অসত্য তা আজ নানা তদন্তে প্রমাণিত, বাস্তবতায় উদ্ভাসিত। সত্যিকারভাবে আমি কোনো অন্যায় করিনি, অনিয়ম করিনি। আমি হলুদ সাংবাদিকতার শিকার।

তিনি আরও বলেন, আমাকে আত্মীয়-স্বজন, ব্যাবসায়ী পার্টনার, বিদেশি উদ্যোক্তা এবং দেশবাসীর কাছে হেয় হতে হয়েছে। মিডিয়ায় নিজের সম্পর্কে অসত্য খবরে আমি কষ্ট পেয়েছি, ব্যাথিত হয়েছি। সেদিনগুলোর কথা মনে হলে আজও আমার মন ভারাক্রান্ত হয়ে যায়, বিষাদে ভরে ওঠে।


তার সঙ্গে এ আচরণ অমানবিক উল্লেখ করে আবুল হোসেন বলেন, আমার সঙ্গে অন্যায় ও অমানবিক আচরণ করার জন্য বিশ্ব ব্যাংক এখন চরম অনুতপ্ত। অথচ দেশের কতিপয় পত্রিকা যেভাবে নানা ইস্যুতে আমাকে ঘিরে যে অসত্য সংবাদ প্রকাশ করেছে তা ছিল অকল্পনীয়।

জনাব মাহফুজ আনামের ভুল স্বীকারের প্রেক্ষিতে আমার মনে অনেক কথা উদয় হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ডেইলি স্টার পত্রিকার একজন সিনিয়র সাংবাদিক আছেন, যিনি অসত্য খবর পরিবেশনে সিদ্ধহস্ত। তিনি নীতিভ্রষ্ট ও ন্যায়ভ্রষ্ট সাংবাদিক।

দক্ষিণাঞ্চলের সঙ্গে রাজধানী ঢাকার সরাসরি সড়ক যোগাযোগের জন্য পদ্মা সেতু নির্মাণ ছিল সাবেক মহাজোট সরকারের অন্যতম নির্বাচনী অঙ্গীকার, যার কাজ শুরু হয়েছিল গত ২০১১ সালে।নদীর বুকে ৬ কিলোমিটার দীর্ঘ এই সেতু নির্মাণে বিশ্ব ব্যাংকসহ অন্যান্য দাতা সংস্থাগুলোর সঙ্গে একে একে চুক্তি করে মহাজোট সরকারের মেয়াদেই সেতুর কাজ শেষ করার প্রতিশ্রুতি থাকলেও, ২০১১ এর শেষের দিকে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে বিশ্ব ব্যাংক অর্থায়ন স্থগিত করলে আটকে যায় প্রকল্প।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/আরকে

 


 

 

উপরে