আপডেট : ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১৫:২৩

একুশে ফেব্রুয়ারিকে ঘিরে বাণিজ্য! দিনটি শোকের না উৎসবের?

বিডিটাইমস ডেস্ক
একুশে ফেব্রুয়ারিকে ঘিরে বাণিজ্য! দিনটি শোকের না উৎসবের?

দেশে বিশেষ কোনো দিবস এলেই সেটিকে ঘিরে ইদানিং অনেক বাণিজ্যিক কার্যক্রম দেখা যায়। যেমন একুশে ফেব্রুয়ারিকে ঘিরে নানান ফ্যাশন হাউজ ভরে গেছে সাদা কালো রঙের শাড়ি আর পাঞ্জাবী দিয়ে।

অ আ ক খ লেখা পোশাক চালু হয়েছে বেশ ক’বছর হলো। আর মানুষ এখন ঘটা করে সেগুলো পরে ফ্যাশন করছে বলে মনে হয়।

শোক দিবসের বদলে একুশে ফেব্রুয়ারি আজকাল একটি উৎসবে পরিণত হয়েছে কিনা ইদানিং এ প্রশ্ন করছেন অনেকেই। একটি শোক দিবসকে ঘিরে বাণিজ্যের গ্রহণযোগ্যতা কতটা?

অনন্য প্রকাশনীর প্রকাশক ও ফ্যাশন হাউজ অন্যমেলার স্বত্বাধীকারি মাজহারুল ইসলাম বলছিলেন এটাকে উৎসব হিসেবে পালন করা হচ্ছে, এটাকে তিনি দোষের কিছু দেখেননা। তার কাছে এটা শোক দিবস নয়, অর্জনের দিবস।

মাজহারুল ইসলাম বলছেন, “এটা আমাদের বাঙালির একটা অহঙ্কার। আমাদের দেশের ভাষা সৈনিকরা ভাষার জন্য জীবন দিয়েছিলেন। আমরা লড়াই করেছি, জিতেছি। আমরা নিজেদের ভাষায় বাংলা ভাষায় কথা বলছি এটা আমাদের অহঙ্কার। এটাকে শোকের কোনো বিষয় আমি মনে করিনা”।

তিনি বলেন, “এ দিবসকে কেন্দ্র করে এ দিনটাকে স্মরণ করার জন্য যদি কেউ পোশাক পরে পালন করে সেটা খারাপের কিছু নয়।” 

তবে মাজহারুল ইসলাম বলেন, “যদি একুশের চেতনাকে ধারণ না করে শুধু সাদা-কালো কাপড় বা একুশের ডিজাইনসহ কোনো পোশাক পরে কেউ ঘুরে বেড়ায় সেটা খারাপের। নিজস্ব সংস্কৃতিকে ধারণ করে দেশীয় পোশাক পরে এ উৎসব পালন করাকে আমি খারাপ বলিনা”।

“আর আমার চোখে এটি শোকের দিন নয়, এটি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। আমাদের অর্জন, আমাদের আনন্দের দিন”-বলেন মাজহারুল ইসলাম। -বিবিসি

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/এসএম

উপরে