আপডেট : ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১১:৩৫

আমাদের কৃষিনীতি বহুজাতিক কোম্পানির স্বার্থ রক্ষা করছে

বিডিটাইমস ডেস্ক
আমাদের কৃষিনীতি বহুজাতিক কোম্পানির স্বার্থ রক্ষা করছে

খাদ্য উৎপাদনে অতিরিক্ত কীটনাশকের ব্যবহার ও কৃষি জমিতে যেভাবে তামাক উৎপাদন করতে দেয়া হচ্ছে তা দেখে মনে হচ্ছে আমাদের কৃষিনীতি বহুজাতিক কোম্পানির স্বার্থ রক্ষা করছে বলে মন্তব্য করেছেন কৃষি উন্নয়ন কর্মী ও বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা উবিনীগ-এর প্রধান ফরিদা আখতার।

তিনি বলেন, পোকামাকড় রোধে কীটনাশকের ব্যবহার, পাকানোর ক্ষেত্রে রং বা কেমিক্যাল ব্যবহার করা হচ্ছে। ফলে সেটি আর আদতে খাদ্য থাকে না।

বাংলাদেশে নিরাপদ খাদ্য উৎপাদন বিষয়ে ফরিদা আখতার বলেন, কৃষিজমিতে বসতি গড়ে তোলা হচ্ছে, অন্যান্য স্থাপনা করতে দেয়া হচ্ছে, খাদ্যের জমিতে তামাক চাষ করতে দেয়া হচ্ছে। তার মতে,  এর মাধ্যমে বহুজাতিক কোম্পানিগুলোর স্বার্থই দেখা হচ্ছে।

যেভাবে মানুষের সংখ্যা বাড়ছে সে অনুপাতে উৎপাদন বাড়ানোর প্রয়োজন রয়েছে কি-না? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন,  খাদ্যের মাধ্যমে এখন অনেক ধরনের রোগ বাড়ছে। মানুষের সংখ্যাই যদি সমস্যা হয় তাহলে কি কীটনাশক বিষ দিয়ে মানুষ মেরে ফেলতে হবে?

ফরিদা আকতার বলেন, “এখানে মানুষের সংখ্যার সমস্যা না, আমাদের কৃষি নীতি আসলে বহুজাতিক কোম্পানির স্বার্থ রক্ষা করছে। আসলে মানুষের সংখ্যাটা এখানে একটি অজুহাত মাত্র”।

কীটনাশক ব্যবহার করা হচ্ছে যতটা না কীটনাশের জন্য নয়, তার চেয়ে বেশি কীটনাশক উৎপাদনকারী কোম্পানিগুলোর ব্যবসা বাড়ানোর জন্য।

কীট দমন করার পদ্ধতি কিন্তু কৃষকই জানে সেজন্য কীটনাশকের দরকার নেই” বলে উল্লেখ করেন তিনি।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/আরকে

 

উপরে