আপডেট : ২৬ জানুয়ারী, ২০১৬ ১৩:৩৬

পুলিশের গুণ গাইলেন প্রধানমন্ত্রী

বিডিটাইমস ডেস্ক
পুলিশের গুণ গাইলেন প্রধানমন্ত্রী

পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপরতায় দেশে জঙ্গিবাদ মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে পারেনি বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এক্ষেত্রে পুলিশ বাহিনীর অবদানের প্রশংসা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, পুলিশ জীবন বাজি রেখে দেশের মানুষের জান-মালের নিরাপত্তা দিচ্ছে। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে না থাকলে দেশের সার্বিক উন্নয়ন সম্ভব হতো না।

মঙ্গলবার (২৬জানুয়ারি) রাজধানীর রাজারবাগ পুলিশ লাইনসে আয়োজিত ‘পুলিশ সপ্তাহে’র উদ্বোধন করে এসব কথা বলেন তিনি।

এসময় বীরত্ব ও কৃতিত্বপূর্ণ কাজের স্বীকৃতি হিসেবে ১১০ জন পুলিশ সদস্যকে বিভিন্ন পদকে ভূষিত করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পুরস্কারপ্রাপ্ত সদস্যদের এসব পদক পরিয়ে দেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বিশ্বব্যাপী যে সন্ত্রাসবাদ চলছে, আল্লাহর রহমতে আমাদের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী সংস্থা বিশেষ করে পুলিশ যেভাবে সক্রিয় তাতে এই সন্ত্রাসবাদ-জঙ্গিবাদ বাংলাদেশে মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে পারে নাই, পারবে না। সেজন্য পুলিশ বাহিনীকে আমি আমার আন্তরিক ধন্যবাদ জানাচ্ছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘বাংলাদেশের স্বাধীনতার ইতিহাসের সঙ্গে রাজারবাগের ইতিহাস স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে। বাংলাদেশ পুলিশ দেশের শান্তি, শৃঙ্খলা ও নিরাপত্তার প্রতীক।’

দেশের সব সংকটে পুলিশ বাহিনী প্রশংসনীয় অবদান রেখে গেলেও এই বাহিনীর ওপর বারবার আঘাত আসে। এজন্য যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবিলায় পুলিশ বাহিনীকে যোগ্য করে তুলতে এর লোকবলসহ অন্য সুবিধা বাড়ানোর কথা জানান তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘গত সাত বছরে আমরা পুলিশের সাংগঠনিক কাঠামোতে ৭৩৯টি ক্যাডার পদসহ ৩২ হাজার ৩১টি পদ সৃষ্টি করেছি। এ সত্ত্বেও দেশের জনসংখ্যার অনুপাতে পুলিশের জনবল যথেষ্ট নয়। তাই আমরা আরও ৫০ হাজার নতুন পদ সৃষ্টির সিদ্ধান্ত নিয়েছি। ইতোমধ্যে ২৭৭টি ক্যাডার পদসহ ১৩ হাজার ৫৫৮টি পদে পুলিশ সদস্যদের নিয়োগ সম্পন্ন হয়েছে।’

সরকারের নেওয়া বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের কথা উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবিলায় পুলিশ বাহিনীকে আরো দক্ষ করে গড়ে তোলা হচ্ছে। সারা দেশের জরাজীর্ণ থানা ভবনগুলোর সংস্কার এবং প্রয়োজনীয় জনবল বাড়ানোর কার্যক্রম হাতে নেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশের মানুষের অধিকার রক্ষায় এবং জানমাল রক্ষায় পুলিশ বাহিনী সদা সতর্ক বলে মন্তব্য করেন শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, ‘বিএনপি-জামায়াত-শিবিরের সহিংসতা ও জঙ্গিবাদ মোকাবিলায় ২০১৩ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ২৬ জন বীর সদস্য জীবন দিয়েছেন। যার মধ্যে ২১ জনই পুলিশ সদস্য। আমি পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করছি।’

পুলিশের এই আত্মত্যাগ এক বিরল দৃষ্টান্ত বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

এ সময় সর্বোচ্চ দেশপ্রেম নিয়ে নিজেদের ওপর অর্পিত দায়িত্ব পালন করতে পুলিশ সদস্যদের প্রতি আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এছাড়া যেসব সদস্য বাংলাদেশ পুলিশ পদক ও রাষ্ট্রপতি পুলিশ পদকে ভূষিত হয়েছেন তাদেরও অভিনন্দন জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

 

 

উপরে