আপডেট : ১৬ জানুয়ারী, ২০১৬ ১৭:৪১

পুলিশের অপরাধ প্রবণতা ঠেকাতে এবার কাউন্সেলিং!

অনলাইন ডেস্ক
পুলিশের অপরাধ প্রবণতা ঠেকাতে এবার কাউন্সেলিং!

একের পর এক বিতর্কিত ঘটনার জন্ম দিয়ে আলোচনায় উঠে এসেছে পুলিশ। পুলিশের নৈতিকতা ও কর্তব্যবোধ নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে নাগরিক সমাজে। এর  প্রেক্ষিতে পুলিশের কাউন্সেলিং শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) মুখপাত্র ও মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম-কমিশনার মনিরুল ইসলাম। 
শনিবার (১৬ জানুয়ারি) ডিএমপি কার্যালয়ে আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা জানান। সম্প্রতি পুলিশের হাতে ব্যাংক কর্মকর্তা ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি) কর্মকর্তার হয়রানি হওয়ার ঘটনায় তুমুল সমালোচনার মধ্যে এ কথা জানালেন মনিরুল।

তিনি বলেন, সম্প্রতি দু’টি ঘটনা আলোচনায় এসেছে। এ ধরনের পরিস্থিতি যেন আর সৃষ্টি না হয়, সেজন্য পুলিশের কাউন্সেলিং চলছে। 

মনিরুল ইসলাম জানান, ব্যাংক কর্মকর্তাকে হয়রানির বিষয়ে প্রাথমিক তদন্তে অভিযোগ পাওয়ায় উপ-পরিদর্শক (এসআই) মাসুদ শিকদারকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। অপর ঘটনাটিরও তদন্ত চলছে। দু’টি ঘটনায়ই পৃথক তদন্ত কমিটি গঠিত হয়েছে। একটি ঘটনার তদন্ত করছে পুলিশ সদরদফতর, আরেকটি করছে ডিএমপি। 

তদন্তের প্রতিবেদন অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অভিযোগের তদন্ত পুলিশ করছে, এতে গাফেলতি বা পক্ষপাতিত্বের সুযোগ আছে কিনা- এমন এক প্রশ্নের জবাবে মনিরুল বলেন, পুলিশের তদন্তের ভিত্তিতে কারও কারও ফাঁসিও হয়েছে। এমন আরও অনেকর শাস্তিও হয়েছে। কোনো ধরনের গাফলতি বা পক্ষপাতিত্বের সুযোগ নেই।
এছাড়া, আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে সাদা পোশাকে অভিযানে যেতে হলে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিতে হবে বলেও তিনি জানিয়েছেন।

 

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে