আপডেট : ৮ জানুয়ারী, ২০১৬ ১৫:০০

৩ জনের মৃত্যু দিয়ে বিশ্ব ইজতেমা শুরু

বিডিটাইমস ডেস্ক
৩ জনের মৃত্যু দিয়ে বিশ্ব ইজতেমা শুরু

লাখো ধর্মপ্রাণ মুসল্লির ‘আল্লাহু আকবার’ ধ্বনিতে মুখরিত হয়ে উঠেছে টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমার ময়দান। এরই মধ্যে টঙ্গীর তুরাগ তীরে বিশ্ব ইজতেমায় প্রথম ধাপে অংশ নেয়া তিন মুসল্লির মৃত্যু হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার রাতে বিভিন্ন সময়ে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তারা মারা যান। নিহতরা হলেন-সিলেটের গোপালগঞ্জ উপজেলার রনকালি এলাকার জয়নাল আবেদীন, কুড়িগ্রমের উলিপুর উপজেলার চকলাপাড় গ্রামের নূরুল ইসলাম ও নাটোরের সিংড়া উপজেলার বটিয়া গ্রামের ফরিদ উদ্দিন।

শুক্রবার ফজরের নামাজের পর আমবয়ানের মধ্য দিয়ে ইজতেমার শুরু হয়। ভারতের মাওলানা আব্দুর রহমানের আমবয়ানের মধ্য দিয়ে ইজতেমার আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। বয়ান বাংলায় তরজমা করে শোনান বাংলাদেশের মাওলানা মো. আব্দুল মতিন।

বাংলাদেশের ক্বারী মো.জুবায়েরের ইমামতিতে লাখো ধর্মপ্রাণ মুসল্লি একসাথে শুক্রবার জুম্মার নামাজ আদায় করেছেন।

২০১১ সাল থেকে প্রতিবছর দুই পর্বে বিশ্ব ইজতেমার আয়োজন করা হচ্ছে। এবার থেকে দুই বছরে চার দেশের ৬৪ জেলার তাবলিগ সদস্যদের জন্য ইজতেমায় অংশগ্রহণের ব্যবস্থা হয়েছে।

এবার প্রথম দফার ইজতেমায় অংশ নিচ্ছেন ১৭টি জেলার মুসলমানরা। জেলাগুলো হলো- ঢাকা জেলার একাংশ, নারায়ণগঞ্জ, শেরপুর, মাদারীপুর, সিরাজগঞ্জ, নাটোর, গাইবান্ধা, নীলফামারী, পঞ্চগড়, লক্ষ্মীপুর, সিলেট, নড়াইল, মাগুরা, চট্টগ্রাম, পটুয়াখালী, ভোলা ও ঝালকাঠি।

ইজতেমা পরিচালনা কমিটির সদস্য গিয়াস উদ্দিন বলেন, ১৬০ একরের সুবিশাল ময়দানের পুরোটাই চটের শামিয়ানা টানিয়ে প্রস্তুত করা হয়েছে। মাঠের উত্তর-পশ্চিম কোনায় টিনশেডের উন্নত আবাসনে বিদেশি মুসল্লিদের রান্নার জন্য গ্যাস, বিদ্যুৎ, টেলিফোন-সংযোগ ও আধুনিক সুযোগ-সুবিধা রাখা রয়েছে। 

গাজীপুরের পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ জানান, পাঁচ স্তরের নিরাপত্তাব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। মাঠের চারদিকে পুলিশ, র‌্যাব, আনসারসহ বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা মোতায়েন রয়েছে।
আগামী রোববার জোহরের নামাজের আগে আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে প্রথম পর্ব শেষ হবে। চার দিন বিরতি দিয়ে ১৫ জানুয়ারি শুরু হবে দ্বিতীয় পর্ব। আখেরি মোনাজাত হবে ১৭ জানুয়ারি।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/আরকে

উপরে