আপডেট : ৩ জানুয়ারী, ২০১৬ ১২:২৬

নাশকতার পরিকল্পনা করেছিল জামায়াত

অনলাইন ডেস্ক
নাশকতার পরিকল্পনা করেছিল জামায়াত

আগামী ৫ জানুয়ারি আওয়ামী লীগের সরকার গঠনের দ্বিতীয় বর্ষপূর্তি। ৬ জানুয়ারি যুদ্ধাপরাধী মতিউর রহমান নিজামীর চূড়ান্ত রায়ের দিন।এই দুই দিন নাশকতার পরিকল্পনা ছিল এমন স্বীকারোক্তি দিয়েছে রাজধানীর রামপুরা থেকে গ্রেফতার হওয়া জামায়াতের পাঁচ নেতাকর্মী।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামিরা এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য জানায় বলে শনিবার রাতে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে প্রকাশ করে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)।

এর আগে শনিবার (জানুয়ারি ২) বিকেলে রামপুরা বনশ্রীর বি ব্লকের ৬ নং রোডের ১৭ নং বাড়ি থেকে তাদের গ্রেফতার করে পুলিশ। এ সময় তাদের কাছ থেকে নগদ এক কোটি ৪৭ হাজার ৫০০ টাকা ও জিহাদি বই জব্দ করা হয়।

আটককৃতরা হচ্ছে মো. গিয়াস উদ্দিন (৫৫), মো. আমিনুর রহমান (৫৬), আবুল হাশেম (৩২), ওসমান গনি (৪০) ও শাহাদাতুর রহমান ওরফে সোহেল (৪৩)।

এদের মধ্যে গিয়াস উদ্দিন জামায়াতে ইসলামী বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের চিফ এ্যাকাউন্টেন্ট ও রুকন, মো. আমিনুর রহমান কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সহকারী এ্যাকাউন্টেন্ট ও রুকন এবং আবুল হাশেম জামায়াতে ইসলামের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের পিয়ন হিসেবে কর্মরত।

ডিএমপির উপ-কমিশনার (মিডিয়া) মো. মারুফ হোসেন সরদার স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ‘আসামিরা আগামী ৫ই জানুয়ারিকে সামনে রেখে এবং  যুদ্ধাপরাধী জামায়াত নেতা মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর আপিল রায়কে কেন্দ্র করে সারাদেশে ব্যাপক নাশকতা ও নৈরাজ্য সৃষ্টির লক্ষ্যে এই টাকা তাদের কর্মীদের মধ্যে বিলি করার জন্য সংগ্রহ করেছিল।’

আসামিদের বিরুদ্ধে রামপুরা থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানায় পুলিশ।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/এআর

উপরে