আপডেট : ১০ জুন, ২০১৭ ০১:৩৯

নারীর আসক্তি, চোখে নেশা আর হাতে বন্দুক নিয়ে হাজির ‘বাবুমশাই’

অনলাইন ডেস্ক
নারীর আসক্তি, চোখে নেশা আর হাতে বন্দুক নিয়ে হাজির ‘বাবুমশাই’

ফের তাঁর হাতে বন্দুক। আর চোখে নেশা। নেশা ফিনকি দিয়ে বেরিয়ে আসা লাল রক্তের। নারী শরীরকে উপভোগ করার নেশা। নতুন এই নেশার তাগিদে যেন একেবারে সেই গ্যাংস্টার মোডে ফেরত চলে গিয়েছেন নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকি। এবার হাতে বন্দুক নিয়ে সেজেছেন ‘বাবুমশাই’। সামনে এল তারই সামান্য ঝলক।

‘কাহানি’ থেকেই তাঁর উত্থানের শুরু। তার আগে সিনেদুনিয়ায় কাটিয়ে ফেলেছিলেন প্রায় এক দশক। কিন্তু চোখে পড়েননি। শেষমেশ ‘কাহানি’র দাপুটে রগচটা পুলিশ অফিসার হয়েই বলিপাড়াকে তাক লাগান নওয়াজ। তারপর ‘গ্যাংস অফ ওয়াসেপুর’। এরপর আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি তাঁকে। সাধারণ চেহারাতেই অভিনয়ে অসাধারণত্বের ছাপ রেখেছেন নিজের প্রতিটা চরিত্রে। প্রতিবার এনেছেন সেই বৈচিত্র যা দেখে দর্শক মুগ্ধ হয়েছে। কিন্তু ‘বদলাপুর’ মোডেই যেন দর্শকরা সবথেকে বেশি পছন্দ করেন তাঁকে।

সে কথা মাথায় রেখেই ‘বাবুমশাই বন্দুকবাজ’কে বেছে নিয়েছেন পোড় খাওয়া এই অভিনেতা। যার প্রথম ঝলকেই তিনি বুঝিয়ে দিয়েছেন, কেন তাঁকে ‘ওয়ান ম্যান আর্মি’ বলা হয়। নিজের এই নতুন ছবির কথা বলতে গিয়ে নওয়াজ বলেছিলেন, চিত্রনাট্যটি পড়েই নাকি তাঁর জেমস বন্ডের চরিত্রের কথা মনে পড়েছিল। যদিও ‘বাবু’র চরিত্রটির সঙ্গে স্টাইলিশ বন্ডের কোনও মিল নেই। তবুও নিজের এই নয়া দেশি অবতারটিকে ‘ডাবল ও সেভেন’-এর মতোই স্টাইলিশ করে তোলার চেষ্টা করেছেন তিনি।

ছবিতে নওয়াজের পাশাপাশি দেখা যাবে বিদিতা বাগ, শ্রদ্ধা দাস, দিব্যা দত্তার মতো অভিনেতাদের। তবে নওয়াজকেই নিজের ছবির ইউএসপি বলে মনে করেন নবাগত পরিচালক কুশন নন্দী।

 

উপরে