আপডেট : ৮ জুলাই, ২০১৮ ১০:৫৪

'তাকে পাথর মারেনি কেউ এটাই ভাগ্য'

অনলাইন ডেস্ক
'তাকে পাথর মারেনি কেউ এটাই ভাগ্য'

কপালে টিপ পরায় পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রীকে মাদরাসা থেকে বহিষ্কার করেছে মাদরাসা কর্তৃপক্ষ। মেয়েটি একটি শর্ট ফিল্মে অভিনয় করার জন্য অ্যাসাইনমেন্ট হিসেবে কপালে টিপ পরেছিল। ভারতের উত্তর কেরালায় এ ঘটনা ঘটেছে। মেয়েটির বাবা উম্মর মালায়িল বলেছেন, ভাগ্য ভালো যে মেয়েটাকে কেউ পাথর মারেনি।

ফেসবুকে মেয়েটির বাবার এ-সংক্রান্ত একটি পোস্ট ভাইরাল হয়েছে। পোস্টটিতে সাড়ে সাত হাজার লাইক পড়েছে। শেয়ার হয়েছে ২ হাজার ৭০০ বার।

উম্মর তার ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন-তার মেয়ে একাডেমিক ও একাডেমিক বহির্ভূত কার্যক্রমে দারুণ পারদর্শীতা দেখালেও তাকে মাদরাসা থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। যে কারণে তাকে বহিষ্কার করা হয়েছে তা অত্যন্ত দুঃখজনক। তার অপরাধ সে কপালে বিন্দি (টিপ) পরেছিল।

‘লেখাপড়ার পাশাপাশি তার ১০ বছর বয়সী মেয়ে নাচ-গানেও অনেক ভালো। স্কুল ও মাদরাসা পর্যায়ের বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় সে অনেকগুলো পুরষ্কার পেয়েছে।’ পোস্টে আরও উল্লেখ করেন উম্মর।

মাদরাসা কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ করায় অনেকে উম্মারকে প্রশংসা করেছেন। আবার কেউ কেউ সমালোচনাও করেছেন।

মন্তব্যে একজন লিখেছেন-মাদরাসা কর্তৃপক্ষ এ সিদ্ধান্ত নিয়ে ভুল করেনি। কারণ, কপালে টিপ পরা অনৈসলামিক ও শরিয়া আইনের পরিপন্থী।

উপরে