আপডেট : ২১ মার্চ, ২০১৬ ২০:৩১

যে চিঠি হৃদয় ছুয়ে গেল যুক্তরাষ্টের পুলিশবাহিনীর

ভিন্ন খবর
যে চিঠি হৃদয় ছুয়ে গেল যুক্তরাষ্টের পুলিশবাহিনীর

আমরা প্রায়ই দেখে থাকি বিশেষ অভিযানে সামরিক বাহিনীগুলো কুকুর ব্যবহার করে থাকে। অভিযানে সময় কুকুর বিভিন্ন আলামত খুঁজে পেতে সাহায্য করে। বিশেষ অভিযানের সময় নিরাপত্তার জন্য সামরিক বাহিনীর সবাইকে বুলেটপ্রুফ জামা পরা দেখলেও কুকুদের বেলায় ব্যপারটি ভিন্ন। তাদের শরীরে কোন রকম নিরাপত্তা জামা দেখা যায় না। তাহলে কি কুকুরদের নিরাপত্তার কোন দরকার নেই? সেই প্রশ্নটি জেগে উঠে সকল প্রশুপ্রেমিদের মনে।   

  

পৃথিবীতে ভালবাসার মত শক্তিশালী আর কিছু নেই। এলিসন নামের ১১ বছরের এক বালিকার মমতা ভরা চিঠির কাছে নড়েচড়ে বসলেন যুক্তরাষ্টের মেসিলন শহরের পুলিশ বিভাগ।

 

তিন বছর আগে পুলিশ বাহিনীর এক মিশন চলাকালীন সময় গুলিবিদ্ধ হয়ে একটি কুকুর মারা যান। পুলিশবাহিনীর হয়তো সেই কথা মনেই নেই। কিন্তু পশু প্রেমিকদের মনে সেই মর্মান্তিক মৃত্যুর ঘটনা আজও গেঁথে আছে। সেইসব পশুপ্রেকিদের মাঝে এলিসন একজন। এলিসন পুলিশবাহিনীর কাছে একটি চিঠি লেখেন এবং চিঠির সাথে সে তার জমানো কিছু অর্থও পাঠান। সেই অর্থ দিয়ে কুকুরের জন্য বুলেটপ্রুফ জামা কিনে দিতে বলেন।   

 

চিঠির জবাবে পুলিশবাহিনী তার ফেসবুক পেজে জানান, তারা নাকি ইতোমধ্যে সব কুকুরের জন্য বুলেটপ্রুফ জামা কিনেছেন। সেই সাথে ১১ বছরের সেই বাচ্চাকে তারা ধন্যবাদ দিয়েছেন।

উপরে