আপডেট : ১০ মার্চ, ২০১৬ ২০:৫০

সেক্সটিং সম্পর্কে অজানা কিছু কথা…

বিডিটাইমস ডেস্ক
সেক্সটিং সম্পর্কে অজানা কিছু কথা…

ফোনে উষ্ণ-বার্তা পাঠান? যাকে চলতি ভাষায় ‘সেক্সটিং’বলে, হালফিলে তা রীতিমতো জনপ্রিয়। কিন্তু এই সেক্সটিং নিয়ে বেশ কয়েকটি তথ্য রয়েছে, যা সম্ভবত অজানা।

সেক্সটিং সম্পর্কে কয়েকটি তথ্য যা জেনে রাখা ভাল।

১. ‘‘সেক্সটিং’’ শব্দটি মেরিয়াম-ওয়েবস্টার্স কলিজিয়েট ডিকশনারিতে ২০১২ সালে অন্তর্ভুক্ত হয়।

২. কেউ মজা হিসেবে নেন, কেউ করেন যৌনতার অন্য স্বাদ উপভোগ করতে। কিন্তু দেখা গিয়েছে, চাপে পড়ে সেক্সটিং করছেন, এমন লোকের সংখ্যা কমই।

৩. সেক্সটিং-এ বেশিরভাগ মেসেজই কিন্তু ‘শেয়ার’ করা। খুব নিকট বন্ধু বা বান্ধবী অথবা গার্লফ্রেন্ড-বয়ফ্রেন্ডের থেকে পাওয়া মেসেজ শেয়ার করেন অধিকাংশ মানুষ। নিজের ছবি দেওয়া বা তৈরি করা মেসেজের সংখ্যা কমই।

৪. যাঁরা নগ্ন ছবি শেয়ার করেন, তাঁদের ৭০ শতাংশই এ কাজটি করেন  প্রেমিক অথবা প্রেমিকার সঙ্গে।

৫. ‘সেক্সটিং’ হল বর্তমানে দেহব্যবসার আর এক ধারা। নগ্ন ছবি পাঠানোর বিনিময়ে নির্দিষ্ট ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে পড়ে যায় টাকা।

৬. তবে সবথেকে দুশ্চিন্তার কারণ হল অনেক কিশোর-কিশোরীই ক্রমশ এর জালে জড়াচ্ছে।

৭. ভারতে সেক্সটিং-এর উপরে কিন্তু কড়া নজরদারি চলে। নাবালক বা নাবালিকার সঙ্গে এ কাজ করলে রয়েছে কড়া শাস্তির ব্যবস্থা।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/আরকে

 

উপরে