আপডেট : ৫ মার্চ, ২০১৬ ০২:১৯

প্রশিক্ষিত মৌমাছি দিয়ে তৈরি হচ্ছে গাঁজার মধু, নেশায় চরম, ঔষধেও সেরা

মির্জা তানজির
প্রশিক্ষিত মৌমাছি দিয়ে তৈরি হচ্ছে গাঁজার মধু, নেশায় চরম, ঔষধেও সেরা

এবার গঞ্জিকা সেবীদের জন্য দারুন এক খবর নিয়ে এলো ফ্রান্সের নিকোলাস নামে এক ভদ্রলোক। পেশায় কখোনো তালা মেরামতকারী কখোনো শিল্পী এই ভদ্রলোকই তাক লাগিয়ে দিয়েছেন বিশ্বকে। তিনি মৌমাছিদের প্রশিক্ষক। নীজেকে ‘নিকোলাস ট্রেনি বি’ নামেই পরিচয় দিতেই সাচ্ছ্যন্দ বোধ করেন তিনি। তিনি বিশ্বব্যপি গাঁজাকে জনপ্রিয় করতে নিজেকে উৎসর্গ করেছেন । গাঁজা মানে গাঁজা সেবন নয়। গাঁজা দিয়ে কল্যানকর নানা ঔষধ বানানোতে গবেষণা করে যাচ্ছেন তিনি।

এমনিতে তো পশ্চিমা বিশ্বে গাঁজা চরম জনপ্রিয়। চরস, ভাং, মারিজুয়ানার প্রকপে টালমাটাল সাড়াবিশ্ব। -আচ্ছা গাঁজার ধোয়া যদি এত পিনিক জাগায় তবে গাঁজার মধু কেমন নেশা তৈরী করতে পারে? এই চিন্তাই সারাক্ষন ঘুরপাক খেত নিকোলাসের মাথায়। ২০১৫ সালের মাঝামাঝি সময়ে হটাৎ করেই মাথায় ভূত চাপলো গাঁজার ফুল থেকে মধু বানাবেন। ব্যস। সেদিন থেকেই নেমে পরলেন মৌমাছিদের নিয়ে। মৌমাছিদের নিয়ে প্রশিক্ষন দেয়া শুরু করলেন কীভাবে গাঁজা ফুল থেকে মধু সংগ্রহ করা যায় সে নিয়ে বিস্তর গবেষণাও শুরু করলেন।

‘গাঁজার মধু সংগ্রহ চাট্টিখানে কথা না। প্রথম প্রথম দেখতাম গাঁজার বাগানে প্রশিক্ষিত মৌমাছিগুলোকে ছেড়ে দিলে কিছুক্ষনের মধ্যেই তারা অসংলগ্ন আচরণ শুরু হরে দিতো। ফুলের উপরেই তারা অচেতন হয়ে পরে থাকতো ঘণ্টার পর ঘণ্টা। ওটা ছিল গাঁজার নেশায় বুদ হয়ে থাকলে যেমন হয় ঠিক তেমনটাই। আমার ভদ্র প্রশিক্ষিত মৌমাছির দল আমার উপরই আক্রমণ করতো তখন। এভাবে দিনের পর দিন চেষ্টা করতে করতে হতাশ হয়ে পরলাম। ততদিনে মৌমাছিগুলো গাঁজা সহিষ্ণু হয়ে উঠেছে। গাজার নেশা আর ওদের ধরে না। সেইদিন থেকেই আমি সফল। সেদিন থেকেই আমি গাঁজা থেকে মধু তৈরীতে সক্ষম হই। ’-বললেন নিকোলাস।

গাঁজার মধু কেমন? এ প্রশ্নের জবাবে তার জবাব, এটা পৃথিবীতে সর্বকালের সেরা মাদক যা শতভাগ স্বাস্থ্যকর। এটা ব্যথানাশক ঔষুধ হিসেবেও দারুন কার্যকর। ইতিমধ্যে এই গাঁজার মধুর খোঁজ পেয়ে গেছেন ইউরোপের মারিজুয়ানা ফোরামে সদস্যরা। তার এই মধু পেতে ধরর্ণা দিচ্ছেন রিকোলাসের দরজায়। আর নিকোলাস কী করছেন ? বাক্স ভর্ত প্রশিক্ষিত মৌমাছি নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন গাঁজা গাছের সন্ধানে সেই ফ্রান্স থেকে স্পেন পর্যন্ত। -খবর নিকোলাস ট্রেনি বি’র ফেসবুক থেকে নেয়া

 

উপরে