আপডেট : ২ মার্চ, ২০১৬ ১৮:৩৬

শুধু ক্ষতিই করে না ভালো পথও দেখায় অ্যালকোহল!

বিডিটাইমস ডেস্ক
শুধু ক্ষতিই করে না ভালো পথও দেখায় অ্যালকোহল!

অ্যালকোহল নামটি শুনে ভদ্রসমাজ একটু নাক কুঁচকাবেন এটাই স্বাভাবিক। অনেকেই এটাকে ভাবেন জীবননাশকারী নেশার উপকরণ হিসেবে। কিন্তু যাঁরা মনে করেন অ্যালকোহল অত্যন্ত ক্ষতিকারক, তাঁরা সব সময় ঠিক ভাবেন তা নয়৷ এই পানপাত্র ঘিরেই কিছু জীবন বদলে দেওয়া ঘটনা ঘটেছিল। জেনে নিন ঘটনাগুলো-

১) মার্ক জুকারবার্গ এর নাম শোনেননি এমন মানুষ বিরল৷ যাঁরাই আজ ফেসবুক-আসক্ত তাঁরাই এই সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সার্ভিসের জনকের নামের সঙ্গে পরিচিত৷ কিন্তু অনেকেই জানেন না ঠিক কীভাবে জুকেরবার্গের মাথায় এসেছিল ফেসবুকের ভাবনা৷ হার্ভার্ড-এর রুমমেটের সঙ্গে তিনি তখন বিয়ার খাচ্ছিলেন৷ বিয়ার খেতে খেতেই মাথায় চলে এল দুনিয়া কাঁপানো কোটি-কোটি ডলার রোজগার করার এই ফেসবুক-ভাবনা৷ জুকারবার্গের মতে বিয়ারের মধ্যে এমন একটি মারাত্মক গুণ নিহিত রয়েছে যা মস্তিষ্কের মধ্যে নতুন-নতুন ভাবনার নিরন্তর জন্ম দেয়৷

২) কলকাতা শহরে উবের ট্যাক্সি অনেকেই চড়েন৷ কিন্তু ঠিক কীভাবে এই উবের-ভাবনা মাথায় এল ট্র্যাভিস ক্যালানিক আর গ্যারেট ক্যাম্প-এর মাথায়? ট্র্যাভিস জানিয়েছেন, 'প্যারিসে একদিন আমি আর গ্যারেট নানা রকম ভাবনা নিয়ে নাড়াচাড়া করছিলাম৷ মৃদু গান বাজছিল৷ আর আমরা মদ্যপান করতে-করতে সানফ্র্যান্সিসকো শহরের মারাত্মক ট্যাক্সি-সমস্যা নিয়ে আলোচনা করছিলাম৷ সেই শহরে ট্যাক্সি পেতে গেলে কতক্ষণ রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকতে হয় সেটা নিয়েই আমাদের মধ্যে একটা তর্ক বেঁধে গেল৷ দুম করে মাথায় ক্লিক করে গেল উবের-কনসেপ্ট৷ সেই বছরই প্যারিস শহরে আমরা শুরু করলাম লিমো টাইমশেয়ার সার্ভিস৷ সেই শুরু৷ আজ আমরা কোথায় দাঁড়িয়ে আছি তা সবাই জানেন৷ এটা সেই সন্ধের মদ্যপানের কারণেই যে হয়েছে তাতে আমার কোনও সন্দেহ নেই৷'


৩) অনিরুদ্ধ গুপ্ত আর নিকুঞ্জ জৈন এক রোববার কয়েক মাগ বিয়ার খেতে খেতে আলোচনা করছিলেন তাঁদের দু-জনের ধর্মীয় শিক্ষক ওশো-কে নিয়ে৷ ঘণ্টা খানেক ধর্মীয় আলোচনার পর দু-জনেই ক্লান্ত৷ তখন শুরু হল বাণিজ্যিক ভাবনা৷ তখনই অনিরুদ্ধ জানালেন নিকুঞ্জকে তাঁর 'ট্রিপোটো' নিয়ে ভাবনার কথা৷ বিয়ারের নেশায় মাথাটা ঝিম-ঝিম করছিল বটে নিকুঞ্জের, কিন্তু অনিরুদ্ধর কথা শুনে তাঁর মনে হল, 'এটাই তো চাইছিলাম৷' অনিরুদ্ধ বলছেন, 'আমার কথা শুনে নিকুঞ্জ ইনভেস্ট করতে রাজি হয়ে গেল৷ একেই বলে বিয়ারের গুণ৷' ২০১৪ সালে এই স্টার্টআপ ব্যবসা শুরু হল নিকুঞ্জের পয়সায়৷

এবছর মার্চে দিল্লির এই স্টার্টআপ এমন একটা জায়গায় পৌঁছেছে যে আইডিজি ভেঞ্চার্স ইন্ডিয়া তাঁদের সংস্থায় ফান্ডিং করতে রাজি হয়েছে৷ বিয়ার না থাকলে হয়তো 'ট্রিপোটো' শুরুই হত না৷এরকম অন্তত আরও বেশ কয়েকটা স্টার্টআপ বিজনেস, যেগুলো এখন সারা বিশ্ব কাঁপাচ্ছে, তার প্রতিটিই শুরু হয়েছিল গেলাসে চুমুক দেওয়া থেকে৷ যেমন, 'রেডিট', 'টিন্ডার', 'থ্রিলিস্ট মিডিয়া গ্রুপ' ইত্যাদি৷

অতএব, যাঁরা প্রতিনিয়ত অ্যালকোহল পানের অপকারিতা নিয়ে যুক্তি দিয়ে চলেন তাঁরা অন্তত এই কথা মাথায় রাখবেন৷ কিন্তু, এর মানে এই নয় যে অ্যালকোহল পানের উপকারিতাই কেবল আছে৷ মনে রাখতে হবে অ্যালকোহল পান শরীরের পক্ষে ক্ষতিকারক৷

 

উপরে