আপডেট : ১৪ জুন, ২০১৬ ১২:২৬

শিখে নিন, একটি মোজার দারুণ সব ব্যবহার

অনলাইন ডেস্ক
শিখে নিন, একটি মোজার দারুণ সব ব্যবহার

মোজার সাথে আমরা সবাই বেশ পরিচিত। নিত্যপ্রয়োজনীয় এই জিনিসটির ব্যাবহার আমরা সবাই সমানভাবে করি না। অথচ দৈনন্দিন জীবনে জুতো-জামার পাশাপাশি মোজার প্রয়োজনীয়তাও কম নয়।। কিন্তু একজোড়া মোজার একটি যখন হারিয়ে যায়, তখন বাকি একটি মোজার কাজ কী? এই মোজা ফেলে দেওয়া ছাড়া আর কোনো উপায় পাওয়া যায় না। কিন্তু আসলেই কী তাই? নাকি এই বেজোড় মোজাটাকেও আমরা লাগাতে পারি দরকারি কিছু কাজে? চলুন দেখে নেই একটি মোজাকে কাজে লাগানোর দারুন কিছু টিপস: 

বাড়ির টুকিটাকি কাজে

- বাসা বদলের সময়ে ছোট্ট ছোট্ট জুয়েলারি যেমন ব্রেসলেট, লকেট, রিং এগুলোকে মোজায় পেঁচিয়ে নিতে পারেন। কাঁচের চুড়ি যাতে না ভাঙ্গে তার জন্যও ব্যবহার করতে পারেন। সানগ্লাসও রাখতে পারেন মোজার ভেতরে।

- কাঁচ অথবা সিরামিকের গ্লাস প্যাক করার সময়ে প্যাডিং হিসেবে মোজা ব্যবহার করতে পারেন।

- মোজার ইলাস্টিক অংশটা কেটে নিয়ে এর সাহায্যে আটকে নিতে পারেন ইলেকট্রনিক্সের কর্ড।

- ফার্নিচারের পায়া মোজায় ঢেকে নিতে পারেন, এতে টাইলস বা মোজাইকের মেঝেতে আঁচড় পড়বে না।

- বাচ্চাদের খেলার ছোট ছোট বল একসাথে একটা মোজায় পুরে নিতে পারেন।

- বাগানে কাজ করার সময়ে বা ঘর রং করার সময়ে জুতোর ওপরে বড় একটা মোজা পরে নিলে সেটা আর ময়লা হবে না।

- ব্যাগে রাখতে পারেন একটা সুন্দর, পরিষ্কার মোজা। ভেজা ছাতা এর ভেতরে ঢুকিয়ে রাখলে আর আপনার ব্যাগ ভিজবে না।

- মোজা দিয়ে ফার্নিচারের ধুলো মোছার কাজটি হয়ে যাবে সহজেই।

- ভ্রমণের সময়ে মোজার ভেতরে জুতো ভরে নিলে আর ব্যাগ ময়লা হবে না।

স্বাস্থ্য সৌন্দর্যের কাজে

- মোজার ভেতরে একটা টেনিস বল ঢুকিয়ে নিন। এবার মোজা গিঁট দিয়ে আটকে নিন। পেশী ব্যাথায় এই বল রোল করে মাসাজ করতে পারেন।

- কটন অথবা উলের সাধারণ মোজার ভেতরে ভরে নিতে পারেন চাল এবং গিঁট দিয়ে অথবা সেলাই করে আটকে দিন। এবার এটাকে এক মিনিট মাইক্রোওয়েভে রেখে গরম করে নিন। এটাকে হট ব্যাগ হিসেবে সেঁক দেওয়ার জন্য ব্যবহার করতে পারেন।

- চুল বাঁধার রাবার ব্যান্ড খুঁজে পাচ্ছেন না? এমন একটা পরিষ্কার, একাকী মোজার ইলাস্টিক অংশটা কেটে নিয়ে দিব্যি কাজ চালাতে পারেন।

- এই  মোজাটা দিয়ে আপনি দিব্যি একটা খোঁপা করে ফেলতে পারেন।কেউ জানবেই না আপনার খোঁপার ভেতরে একটা মোজা আছে!

- মোজা দিয়ে চুলে নিয়ে আসতে পারেন মারমেইড ওয়েভ। - কোনো কারণে হাত ও পায়ের ত্বক রুক্ষ হয়ে গেলে বেশ করে লোশন মেখে নিন। এরপর হাতে ও পায়ে মোজা পরে ঘুমাতে যান। ঘুম থেকে উঠে দেখবেন ত্বক বাচ্চাদের মতো নরম।

- নতুন একটি ট্রেন্ড এসেছে, মোজা ব্যবহার করে ফাউন্ডেশন প্রয়োগ করা। এই কাজে ব্যবহার করতে পারেন বেজোড় মোজাগুলো।

- মোজার ইলাস্টিক অংশটা অনেক কাজে লাগে। ব্যায়ামের সময় রিস্টব্যান্ড অথবা ফোন আটকে রাখার জন্য ব্যবহার করতে পারেন।

রান্নাঘরের কাজে

- ফ্রাইপ্যানের হাতলে একটা মোজা লাগিয়ে নিতে পারেন। এতে যেমন হাত সুরক্ষিত থাকবে তেমনি হাতলে ময়লাও লাগবে না।

- বোতল বা যার খুলতে না পারলে মোজা পেঁচিয়ে খোলার চেষ্টা করুন।

- মধু, সস, তেল এসবের বোতল বা জার যেখানেই রাখুন না কেন তা চটচটে ও ময়লা হয়ে যায়। এগুলোকে মোজা পরিয়ে রাখুন, এতে আপনার ফ্রিজ বা কাপবোর্ড পরিষ্কার থাকবে।

ছোট্ট বাচ্চাদের দরকারে

- বড়দের একটা মোজা থেকে বাচ্চার একজোড়া মোজা তৈরী করা যায়।

- বাচ্চা হামাগুড়ি দেওয়া শিখলে মোজা কেটে তার কনুই ও হাঁটুতে পরিয়ে রাখুন, হাঁটুতে ব্যথা কম পাবে।

- পক্স বা অন্য কোনো র‍্যাশ হলে বাচ্চার হাতে মোজা পরিয়ে রাখুন যাতে চুলকাতে না পারে।

- মোজার ভেতরে সাবান রেখে সেটা দিয়ে বাচ্চাদের গোসল করাতে পারেন।

-মোজা দিয়ে তৈরী  করতে পারেন বাচ্চাদের খেলনা। যেমন পাপেট, বিভিন্ন জীবজন্তু ইত্যাদি।

- তৈরি করতে পারেন বার্বি ডলের জামাকাপড়।

এছাড়াও-

- ঠাণ্ডা পানির বোতল মোজায় মুড়ে ব্যাগে রাখলে বেশীক্ষণ ঠাণ্ডা থাকবে।

- ছোট ছোট টবে মোজা পরিয়ে রাখতে পারেন, ঘর নোংরা হবে না।

- অনেকগুলো একাকী মোজা একসাথে হলে তৈরি করে ফেলতে পারেন কাঁথা, পার্স, মোবাইলের ব্যাগ, পাপোষ ইত্যাদি।

- মোজায় কফির গুঁড়ো অথবা বেকিং সোডা ভরে রেখে দিতে পারেন দুর্গন্ধযুক্ত জুতোর গন্ধ দূর করার জন্য।

- মোজায় সুগন্ধি শুকনো মশলা বা ন্যাপথালিন ভরে কাপড় চোপড়ের সাথে রাখতে পারেন, স্যাঁতস্যাঁতে ভাব দূর হয়ে যাবে।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/বুলা

 

উপরে