আপডেট : ২৩ মার্চ, ২০১৬ ১৩:৫৯

জানুন রহস্যময়ী দেশ নাইজেরিয়া সম্পর্কে দশটি অজানা তথ্য

অনলাইন ডেস্ক
জানুন রহস্যময়ী দেশ নাইজেরিয়া সম্পর্কে দশটি অজানা তথ্য

১. এম.কে.ও আবিওলার পূর্ব নাম ছিল কাশিমাও যা তার বাব-মা তাকে দিয়েছিলেন। এবং তিনি তার পিতার ২৩তম সন্তান।

২. জাজা ওয়াচুচকু ছিলেন প্রথম ব্যাক্তি যিনি লাগসকে ‘নো ম্যান্স ল্যান্ড’ বলে দাবী করে ১৯৪৭ সালে সারাদেশে জাতীয় বিরোধ সৃষ্টি করেছিলেন।

৩. ১৯৭০ সালে জোলফ চাল, মুরগীর সিনার মাংস, আইসক্রিম, চা, কফি বা পূর্ণ ক্রিম দুধ এবং চিনি মিলিয়ে সম্পূর্ণ খাবারের দাম পড়তো – মাত্র ৫০ কোবো।

৪. স্যাম ওকওয়ারাজি ১৯৮৯ সালে মৃত্যুর সময় ছিলেন একজন পি.এইচ.ডি ডিগ্রী প্রার্থী এবং প্রতিষ্ঠিত উকিল।

৫. যখন ১৯২৯ সালে কানোতে ব্রিটিশ ব্যাঙ্ক অব ওয়েষ্ট আফ্রিকার একটি শাখা খোলা হয় তখন আলহাসান ডান্টাটা একটি একাউন্ট খুলেন, যেখানে তিনি ডিপোজিট করেন ২০টি উট বোঝাই রোপ্য মুদ্রা।

৬. জাজা ওয়াচুকু কে বলা হত পশ্চিম আফ্রিকার সবচেয়ে বই পাগল মন্ত্রী। পুরো পশ্চিম আফ্রিকায় তার চেয়ে বড় লাইব্রেরী ার কারো ছিল নাহ।

৭. নাইজেরিয়ার উপনিবেশ স্থাপন অর্জনে ৪০ বছরের অধিক সময় লেগেছিল এবং অঞ্চলসমূহ বলপ্রয়োগের দ্বারা একত্রিত করা হয়েছিল।

৮. ইওরুবাকে একটি শাস্ত্রীয় ভাষা হিসেবে ক্যারিবিয়ান ও দক্ষিণ-মধ্য আমেরিকার সানতেরিয়া কাল্টে উচ্চারন করা হয়।

৯. দাসত্ব ১৫ শতকের আগে নাইজেরিয়ান ভূখণ্ডে অস্তিত্ব প্রকাশ করে এবং তা ব্রিটেন কর্তৃক ১৯ শতকে, ১৮০৭ সালে বিলুপ্ত হয়।

১০. ১৯৫৫ সালে কমপক্ষে ৫৫ জন নারীকে হত্যা করা হয়।

উপরে