আপডেট : ২১ মার্চ, ২০১৬ ১৮:২৮

জানুন নাইজেরিয়া সম্পর্কে অজানা ১০টি তথ্য

বিডিটাইমস ডেস্ক
জানুন নাইজেরিয়া সম্পর্কে অজানা ১০টি তথ্য

১. ‘অনিটশাহ’ এ অবস্থিত ‘দি রিভার নিগার ব্রীজ’, ১৯৬৪-১৯৬৫ সালের মধ্যে ৫ মিলিয়ন পাউন্ড খরচ করে ‘ডুমেজ’ নামক একটি ফরাসি নির্মাণ কোম্পানির দ্বারা তৈরী করা হয়েছিল।

২. নাইজেরিয়ার সবচেয়ে  শিক্ষিত মহিলা হলেন নাইজেরিয়ান প্রাক্তন ফার্ষ্ট লেডি ‘প্যাইসেন্স জনাথান’।  –তিনি ইউনিভারসিটি অব পোরট-হারকোর থেকে একটি এন.সি.ই, বি.ই.ড এবং একটি পি.এইচ.ডি ডিগ্রী লাভ করেন।

৩. নাইজেরিয়ার সর্বোচ্চ উঁচু পাহাড়ের নাম ‘ছাপ্পাল ওয়াড্ডি’ যার অর্থ "মৃত্যুর পাহাড়" । এটি টারাবাতে অবস্থিত।

৪. পৃথিবীর ১৯৬টি দেশের প্রত্যেকটিতেই একজন হলেও নাইজেরিয়ান বাস করেন।

৫. নাইজেরিয়ার ৫জন প্রেসিডেন্ট ‘ক্যাটসিনা কলেজ’ এর ছাত্র ছিলেন। এই কলেজটি ১৯২১ সালে কাটসিনায় স্থাপিত হয়।

৬. মুরতালা মোহাম্মাদ এবং বেন অ্যাডেকুনলে দুজনই ‘রেগুলার অফিসারস স্পেশিয়াল ট্রেইনিং’ স্কুলে ওজুকুর ছাত্র ছিলেন। এবং তারা দুজনই গৃহযুদ্ধের সময় ওজুকুর বিরুদ্ধে লড়েছিলেন।

৭. ১৯৬০ সালে নাইজেরিয়া যখন স্বাধিনতা পায় তখন নাইজেরিয়ার উত্তরে ছিল ৪১ টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং দক্ষিনে ছিল ৮৪২টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়।

৮. ১৯৮৩ সালে সিনেটর আরথার এনযেরিব ওরলুতে এই সিনেটর পদ পাবার জন্য ব্যায় করেছিলেন ১৬.৫ মিলিয়ন ডলার।

৯. ১৯৭৩ সালে, নাইজেরিয়ার সরকার ঔপনিবেশিক নামের জন্য আনুষ্ঠানিকভাবে ‘লাগোস’ শহরের নাম বদলে রাখেন ‘ইকো’।

১০. ১৯৬৬ সালের অভ্যুত্থানের পর আত্মসাৎকরন, ধর্ষণ ও সমকামিতা মৃত্যুদন্ডীয় অপরাধে অন্তর্ভুক্ত হয়।


সূত্রঃ নাইজেরিয়ান স্কুপ
বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জামি

উপরে