আপডেট : ১৯ মার্চ, ২০১৬ ০০:০৮

জামার ‘বোতাম রহস্য’কখনও উন্মোচন করেছেন কি? তাহলে রহস্যভেদে ক্লিক করুন...

অনলাইন ডেস্ক
জামার ‘বোতাম রহস্য’কখনও উন্মোচন করেছেন কি? তাহলে রহস্যভেদে ক্লিক করুন...

‘বোতাম’-এও এমন হয়। তারও ডান-বাঁ দিক-ঘটিত জটিলতা রয়েছে। কখনও কেউ খেয়াল করেছেন এই রহস্য?

‘বোতাম রহস্য’! কি শুনে একটু বিভ্রান্তির মধ্যে পড়লেন নাকি? প্রশ্নটা এই প্রকার— মেয়েদের জামার ক্ষেত্রে বোতাম থাকে বাঁদিকে, আর ছেলেদের ক্ষেত্রে তা থাকে ডানদিকে, কেন?

এই নিয়ে একাধিক যুক্তিও রয়েছে, কোন যুক্তি আপনি মানবেন, সেটা আপনাকেই ঠিক করতে হবে, কিন্তু, যুক্তিগুলোতে একবার নজর বুলিয়ে নিন— 

১. আগেকার দিনে একমাত্র সচ্ছল এবং অভিজাত পরিবারের রমণীদের জামাতেই বোতাম থাকত। আর এই সব পরিবারে মহিলাদের জন্য থাকত কাজের লোক। তাঁরাই মহিলাদের জামা-কাপড় পড়া এবং বোতাম লাগানোর কাজে সহযোগিতা করতেন। এক্ষেত্রে মহিলাদের জামার বোতাম বাঁ-দিকে থাকলে কাজের লোকেদের পক্ষে বোতাম লাগাতে সুবিধা হত। তাই মহিলাদের জামার বোতাম বাঁদিকে থাকার সেই যে চল চলে আসছে তার অন্যথা হয়নি। 

২.অন্যদিকে, পুরুষরা বরাবরই নিজের জামার বোতাম নিজেরাই লাগান। ডানদিকে বোতাম থাকলে তা লাগানো সহজ। কারণ অধিকাংশ পুরুষই ডানহাতি। এই কারণেই ছেলেদের জামার বোতাম বরাবর ডানদিকে লাগানো থাকে। 

৩. মহিলাদের জামার বোতাম বাঁদিকে থাকার আরও একটি যুক্তি শোনা যায়, তা হল— মহিলারা সন্তানকে বাঁদিক করে কোলে নেন। ফলে ডানহাত দিয়ে বোতাম খুলতে সুবিধা হয়। 

৪. পুরুষদের জামার বোতাম ডানদিকে থাকার আরও একটি যুক্তি শোনা যায় যে, আগেকার দিনে পুরুষরা ডানহাতে তলোয়ার চালাতেন,তাই বাঁ-হাত দিয়ে জামার বোতাম খুব সহজেই তাঁরা খুলতে পারতেন। তাই পুরুষদের জামার বোতাম ডানদিকে থাকে। 

উপরে