আপডেট : ১৪ মার্চ, ২০১৬ ১৪:৩৬

ব্যায় কমিয়ে আয় বাড়ান, জেনে নিন খরচ কমানোর ১০ উপায়

অনলাইন ডেস্ক
ব্যায় কমিয়ে আয় বাড়ান, জেনে নিন খরচ কমানোর ১০ উপায়

আয় না বাড়লেও খরচ বাড়ে। আর সেই খরচের মোকাবিলা করতেই হয়। কিন্তু কিছুই জমে না। যদিও জমানোটা ভবিষ্যতের জন্য একান্তই জরুরি। সবাই বলে খরচ কমালে অর্থ জমে। কিন্তু খরচ কমাবেন কী করে? রইল ১০টি পরামর্শ।

১। বাসস্ট্যান্ড বা স্টেশনে হেঁটে যান। রিকশা-ভাড়া বাঁচাতে কিছুটা আগে বাড়ি থেকে বের হয়ে যান। অফিস থেকে ফেরার পথে অটো বা ট্যাক্সি নয়, বাসে চড়ুন। 

২। ক্রেডিট কার্ড ছুড়ে ফেলে দিন। এর সুদের হার মারাত্মক। ঠিক সময়ে জমা না দিলেই বিপদ। বরং হাতে বাজেটের উপরে টাকা নেই তাই কেনার পরিকল্পনা বাতিল করুন।

৩। মাসের শুরুতেই বাজেট বানান। সেই বাজেট থেকে ফের কাটছাঁট করুন। তার পরেও কেনার সময়ে দরদস্তুর করে কিনলে দেখবেন কিছুটা পয়সা বাঁচবে। সেটা দিয়ে আবার অন্য অপ্রয়োজনীয় খরচ করবেন না।

৪। যে জিনিস পরেও কাজে লাগবে, তা একসঙ্গে বেশি করে কিনুন। সম্ভব হলে বন্ধুদের সঙ্গে নিয়ে আরও বেশি কিনুন। 

৫। পারলে সেল-এর সময়ে বেশি করে কেনাকাটা করুন। কোথায় কী কিনলে ছাড় মিলছে খোঁজ রাখুন। কুপন পেলে ছাড়বেন না। তবে অদরকারি জিনিস কিনবেন না মোটেই।

৬। যতটা সম্ভব অনলাইন কেনাকাটা করুন। তাতে খরচ কমে। তবে লোভে পড়ে একগাদা কিছু কিনে ফেলবেন না।

৭। বড় বড় রেস্তোরাঁ নয়। মেজ রেস্তোরাঁও নয়। বরং একটু দূরের ধাবায় চলে যান হ্যাংআউট-এর জন্য।

৮। সেভিংস অ্যাকাউন্টে নিয়মিত টাকা রাখুন। এটা অটোমেটিক ট্রান্সফার হলে ভাল হয়। প্রতি মাসের শুরুতেই নির্দিষ্ট অর্থ মিউচাল ফান্ড বা অন্য কোথাও বিনিয়োগ করুন।

৯। নিমন্ত্রণ থাকলে বাড়িতে কম খেয়ে যান। আর গিফট কখনও বাজেটের বাইরে গিয়ে কিনবেন না। যদি দেখেন বাজেটে কুলোচ্ছে না, তবে কোনও একটা অজুহাতে নিমন্ত্রণ-বাড়ি এড়িয়ে যান।

১০। হাঁটুন। শরীরও ভাল থাকবে। পকেটও ভাল থাকবে। একটু হেঁটে কোথায় গেলে সস্তা হবে দেখে কেনাকাটা করুন। বাজার করুন ঘুরে।

উপরে