আপডেট : ২৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১১:১৩
জ্যোতিষবিদরা বিশ্বাস করেন

লিপ ইয়ারে জন্ম নেয়া শিশুরা প্রচণ্ড প্রতিভাবান হয়!

জানার আছে আরো অনেক তথ্য...
বিডিটাইমস ডেস্ক
লিপ ইয়ারে জন্ম নেয়া শিশুরা প্রচণ্ড প্রতিভাবান হয়!

২০ বছরের দুরন্ত তরুণ মুকিত। পড়ছেন ঢাকা কলেজে। ২০০৪ সালের ২৯ ফেব্রুয়ারি জন্ম হয়েছে মুকিতের। জন্মের ২০ টি বসন্ত সে অতিক্রম করেছে কিন্তু জন্মদিন পালন করলো মাত্র পাঁচ বছর! এ নিয়ে মুকিত মহা খুশি। বিডিটাইমসকে সে জানায় ‘চার বছর পর পর জন্মদিন আসে। বন্ধুরা চাইলেই প্রতি বছরই আর ট্রিট পায়না। আমার খরচও কমে যায়। এছাড়া চার বছর পর পর জন্মদিনটা একটু ধুমধাম করেই পালন করা যায়।’

বছরের ১২ মাসের মধ্যে ফেব্রুয়ারি মাস হয় ২৮ দিনে। চার বছর পর পর একটি বছরে ফেব্রুয়ারি মাসটা হয় ২৯ দিনের। এ মাসে তাই ছোট্ট ফেব্রুয়ারি একটু বড়। এটাকে আমরা বলি লিপ ইয়ার।

কিভাবে আসলো লিপ ইয়ার কিংবা কেন এই লিপ ইয়ার। জেনে নিন লিপ ইয়ার সম্পর্কে এমন কয়েকটি তথ্য, যেগুলো  হয়তো আপনি জানেন না।

১) লিপ ইয়ার নামটি দিয়েছিলেন পোপ গ্রেগরি ত্রয়োদশ।
২) লিপ ইয়ারে এখনও ইউরোপে বেশিরভাগ দেশের মেয়েরা তাঁদের পছন্দের পুরুষকে প্রেমের প্রস্তাব দেন।
৩) ডেনমার্কে কোনও মেয়ে যদি কোনও ছেলেকে লিপ ইয়ারে প্রেমের প্রস্তাব দেয়, আর সেই ছেলেটি সেই প্রস্তাবে সাড়া না দেয়, তাহলে মেয়েটিকে এই জন্য এক ডজন দস্তানা দিতে হয়!
৪) একটা সময় গ্রিসে লিপ ইয়ারে বিয়ের চল ছিল না। তাঁরা মানতেন এই দিনে বিয়ে করলে, খারাপ হয়।

৫) রাশিয়ায় এমনটাই বিশ্বাস যে, লিপ ইয়ারের দিন গোটা বিশ্বেই বিপর্যয়ের সম্ভাবনা থাকে। মানুষের মৃত্যুও বেশি হয় এই দিনে।
৬) জ্যোতিষবিদরা বিশ্বাস করেন লিপ ইয়ারে যারা জন্মায়, তারা প্রচণ্ড প্রতিভাবান হয়।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

উপরে