আপডেট : ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১৮:১৭

ভারতে অন্ধত্ব নিয়ে ১০টি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য

নিজস্ব প্রতিবেদক
ভারতে অন্ধত্ব নিয়ে ১০টি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য

পৃথিবীর আলো যে দেখতে পারেনা সে জানে বেঁচে থাকাটা কতটা কষ্টের। প্রতিবছর সারাবিশ্বে বহু মানুষ অন্ধত্ব বরণ করছে। আর এই হার সবচাইতে বেশি ভারতে। আসুন জেনে নেই ভারতে অন্ধত্ব নিয়ে ১০টি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য।

১) পৃথিবীর সবচেয়ে বেশি অন্ধ মানুষ বাস করেন ভারতে। প্রায় দেড় কোটি। সরকারি নথিভুক্ততার বাইরে যাঁরা রয়েছেন, তাঁদের যদি ধরা হয় তবে সংখ্যাটি আরও বাড়বে। 

২) প্রতি বছর গড়ে ৩০,০০০ ভারতীয় অন্ধত্বের শিকার হন। 

৩) চক্ষুদান ভারতীয়দের মধ্যে খুবই জনপ্রিয় কিন্তু প্রায় ৬০ শতাংশ দান করা চোখ হয় নষ্ট হয় নয়তো কোনও কাজেই লাগে না। 

৪) মারা যাওয়ার ৬ ঘণ্টার মধ্যে দাতার শরীর থেকে কর্নিয়া অপসারণ করাই নিয়ম আর অপসারণের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ট্রান্সপ্লান্ট করে দিতে হয় কর্নিয়া। তা না হলে চক্ষুদান করে কিছু লাভ হয় না।  

৫) এদেশে ৬২.৬ শতাংশ অন্ধত্বের কারণ হল ছানি। 

৬) ছানি ছাড়া ভারতীয়দের অন্ধত্বের অন্যতম বড় কারণ হল ডায়বেটিক রেটিনোপ্যাথি অর্থাৎ ডায়বেটিজের ফলে চোখ নষ্ট হয়ে যাওয়া। 

৭) ভারতে প্রায় ২০ লক্ষ শিশু অন্ধত্বের শিকার। এর মধ্যে শুধুমাত্র ৫ শতাংশই শিক্ষার সুযোগ পায়। 

৮) বলা হয় পৃথিবীর ৩ জন অন্ধ ব্যক্তির একজন ভারতে বাস করেন। আর ভারতে প্রতি ৮০ জনে একজন দৃষ্টিহীন। 

৯) অন্ধত্বের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি মহারাষ্ট্রে, ৯ লক্ষেরও বেশি। 

১০) ৭৫ শতাংশ দৃষ্টিহীনতার চিকিৎসা রয়েছে। অর্থাৎ নির্দিষ্ট সময়ে উদ্যোগ করলে দৃষ্টি ফিরে পাওয়া সম্ভব।   

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/আরকে 

উপরে