আপডেট : ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ১১:৩৪

জেনে নিন ১১টি কু-অভ্যাসের ‘সু’-দিক !!!

অনলাইন ডেস্ক
জেনে নিন ১১টি কু-অভ্যাসের ‘সু’-দিক !!!

বেশি ফ্যাট যুক্ত খাবার অথবা জাঙ্ক ফুড খেতে ইচ্ছে করলেও ক্যালোরির কথা ভেবে হয়তো আপনি হয়তো নিজেকে বঞ্চিত করেন। অত না ভেবে মাঝেমধ্যে ইচ্ছা হলে এই ধরনের খাবার খেয়েই ফেলুন। কারণ, বেশি ফ্যাট যুক্ত এররকম খাবার একবার খেলে অনেকক্ষণের জন্য নিশ্চিন্ত।

ছোট থেকে যে অভ্যাসগুলিকে ক্ষতিকর বলে জেনে এসেছেন, কেউ যদি বলে সেগুলি আসলে আপানার জন্যে উপকারী, তা হলে কি বিশ্বাস করবেন? আপনি বিশ্বাস করুন বা না করুন, বিভিন্ন গবেষণায় দেখা যাচ্ছে টিভি দেখা, সিগারেট খাওয়া, জাঙ্ক ফুড- সেই তালিকায় রয়েছে সবই। আসুন, একবার চোখ বুলিয়ে নিই।

১. অতিরিক্ত টিভি দেখলে মানুষের বুদ্ধিনাশ হয়। শিশুদেরকে তো ছোট থেকেই এই বলেই সতর্ক করেন বড়রা। টিভি-কে বোকাবাক্স বলা হয়। যদিও বলা হচ্ছে, টিভি দেখলে বরং মানুষের বিচক্ষণতা বাড়ে। কারণ হাজারো চ্যানেলের মধ্যে কোনটা ভাল বা নিজের পছন্দের, সেটা বেছে নেওয়ার ক্ষমতা তৈরি করা যায় টিভি দেখে।

২. গাঁজার নেশা সর্বনাশা। মোটেই না। বরং দাবি করা হচ্ছে গাঁজা নাকি অ্যালঝাইমারস রোগ প্রতিরোধ করতে পারে। শুধু তা-ই নয়, বেশ কয়েক ধরনের ক্যানসার প্রতিরোধেও গাঁজা সাহায্য করে।

৩. বেশি ফ্যাট যুক্ত খাবার অথবা জাঙ্ক ফুড খেতে ইচ্ছে করলেও ক্যালোরির কথা ভেবে হয়তো আপনি হয়তো নিজেকে বঞ্চিত করেন। অত না ভেবে মাঝেমধ্যে ইচ্ছা হলে এই ধরনের খাবার খেয়েই ফেলুন। কারণ, বেশি ফ্যাট যুক্ত এররকম খাবার একবার খেলে অনেকক্ষণের জন্য নিশ্চিন্ত। ফলে, খিদে কম পাওয়ায় আপনি দিনের বাকি সময়ে খাবেনও কম। দেখা যাচ্ছে, বাস্তবে এতে আপনার ক্যালোরি ইনটেক কমে।

৪. সকালে ঘুম কিছুতেই ভাঙতে চায় না। পরের পর অ্যালার্ম মিস। ভাবছেন কীভাবে এই আলস্য কাটাবেন? চিন্তা করবেন না, বেশি ঘুমোলে আপনার মস্তিষ্ক সতেজ হয়। ফলে স্মৃতি শক্তির সঙ্গে আপনার শেখার ক্ষমতাও বাড়ে।

৫. আপনার সন্তান কি আঙুলের ফাঁকে পেন্সিল অথবা পেন ধরে সমানে নাচাতে থাকে? বারণ করলেও নিশ্চয় শোনে না। বারণ করবেনই না। কারণ, এই অভ্যাস আয়ু বাড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে ক্যালোরি ঝরাতেও সাহায্য করে।

৬. জোরে গান শোনার জন্য লোকে কথা শোনায়। আরও জোর শুনুন। গবেষণা বলছে ৯০ ডেসিবেল পর্যন্ত আওয়াজে গান শুনলে আপনাকে খুশি এবং মাথা ঠান্ডা রাখতে সাহায্যকারী হরমোনগুলির কার্যকারিতা বৃদ্ধি পায়।

৭. রাগ একদম জমিয়ে রাখবেন না। মাঝেমধ্যে রেগে গিয়ে তার বহিঃপ্রকাশ আপনার স্বাস্থ্যের পক্ষে ভাল। অন্তত ভয় পাওয়া বা বিরক্ত হওয়ার তুলনায় রেগে যাওয়া ভাল বলেই দাবি করা হচ্ছে।

৮. আপনি জানেন হয়তো, তা-ও মনে করিয়ে দেওয়া। মাঝেমধ্যে রেড ওয়াইন খেলে তা ক্যানসার প্রতিরোধে সাহায্য করে। আপনার হার্টও ভাল থাকে।

৯. খুব হতাশ লাগছে? মনে হচ্ছে গোটা দুনিয়া আপনার বিরুদ্ধে? কঠিন পরিস্থিতিকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে মনে মনেই কয়েকটা গালাগালি দিন। বিশ্বাস না হলে একবার পরীক্ষা করে দেখুন।

১০. শরীরের ক্ষতি হবে বলেই অনেকেই খুব বেশি কফি খান না। অনেকে এড়িয়েও চলেন। কিন্তু জেনে রাখুন, কফি খেলে ডায়াবেটিস-এর সম্ভাবনা কমে।

১১. জ্বর হয়েছে? চিন্তা করবেন না। কারণ, জ্বরের পরে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা আরও ভালভাবে কাজ করতে শুরু করে।

উপরে