আপডেট : ৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ ২২:৩৭

মানুষ শূন্য ঘরে, নারীরা যা যা করে!!

বিনোদন ডেস্ক
মানুষ শূন্য ঘরে, নারীরা যা যা করে!!

ছেলেদের একই কথা নারীর চরিত্র বেজায় জটিল, নারীর মন নাকি কেউ বুঝতে পারে না। এমনকি দেবতাও নয়। নারীরা একেক জায়গায় একেক রোল। কখনও উদাসীন, কখনও আবার আবেগপ্রবণ। এই হয়তো সে প্রচণ্ড অভিমানী। তার মান ভাঙাতে ফন্দি আঁটতে হচ্ছে প্রেমিকপ্রবরকে। আবার প্রিয়জন চোখের আড়াল হতেই কেঁদে ভাসাচ্ছে সে।

সাধে কি বলে? বিশ্বের সবচেয়ে জটিল চরিত্র নারীমন! আর সেই নারী যখন একা, তখন সে ঠিক কী কী করে? জানতে উৎসুক হয় সবাই। নিচে নারীদের সম্পর্কে এমনই কিছু তথ্য তুলে ধরা হল।

ঘণ্টা পর ঘণ্টা আয়নায় নিজেকে দেখা: ঘণ্টা পর ঘণ্টা আয়নায় নিজেকে দেখে কাটিয়ে দিতে পারে নারী। রূপ নিয়ে বরাবরই নারীমন খুঁতখুঁতে। মুখে একটা ব্রণ বেরলেই তার রাতের ঘুম ছুটে যায়। চোখের নীচে কালি পড়লে তো আর কথাই নেই। তার উপর রয়েছে স্প্লিট এন্ডের ঝক্কি। একরাশ চিন্তায় সদাই ব্যতিব্যস্ত নারী।

জেগে উঠতে পারে তার পুরনো প্রেম: নারীরা বাসায় একা থাকলে অনেক সময় তাদের পুরোনো প্রেম জেগে ওঠে। এমনকী পুরনো প্রেমিকও কিন্তু হয়ে উঠতে পারে তার কথা বলার সাথী।

যৌন উত্তেজনায় আচ্ছন্ন হতে পারে মন: নারী একা থাকলে তারা যৌন উত্তেজনায় আচ্ছন্ন হতে পারে। চলতে পারে নিজ শরীরের কাঁটাছেড়া। ঠিক কতটা সুঠম হল তার স্তনের গঠন? তাই নিয়েও হঠাৎ করে ব্যস্ত হয়ে পড়তে পারে সে। নিজেকে নগ্ন দেখার বাসনাও জাগতে পারে তার।

অনভ্যাসে ভুলে যাওয়া নাচটা ঝালিয়ে নেয়ার বাসনা জাগতে পারে: নারী একা বাসায় থাকলে অনভ্যাসে ভুলে যাওয়া নাচটা ঝালিয়ে নেয়ার বাসনা জাগতে পারে। আর সেই নাচের স্টেজ তখন হবে ঘরের মেঝে থেকে বিছানা সর্বত্র। ফুলদানি হাতে নিয়ে তারস্বরে গান গাইতে শুনলেও অবাক হবেন না। বিছানা নষ্ট হচ্ছে, বালিশ ফেটে তুলো ছড়িয়ে পড়ছে। সেদিকে তাকানোর তখন ভ্রূক্ষেপ নেই নারীর।

রান্নাবান্না নিয়ে এক্সপেরিমেন্ট: হয়তো জন্মে কোনও দিন সে রান্নাঘরে গিয়ে কুটোটি নাড়েনি। কিন্তু, সেদিন চলতে পারে রান্নাবান্না নিয়ে এক্সপেরিমেন্ট। স্পেশাল ডিশ রেঁধে সে তখন বেজায় খুশ!

বাথরুমে সময় পার: ঘণ্টার পর ঘণ্টা সে কাটিয়ে দিতে পারে বাথরুমে শুধু কল ছেড়ে বসে থেকে। বালতিতে জল হয়তো উপছে পড়ে যাচ্ছে, সেদিকে তার হুঁশও নেই।

পার্লারের মেয়েটিকে ফোন করে বাড়িতে ডাকা: একা ঘর! এই সুযোগ। তারপর বাড়িতেই পেডিকিউর, ম্যানিকিউর, ফেসিয়াল, ওয়াক্সিং। চলতে থাকে একের পর এক।

ফোনে তোলা সব ছবিগুলোকে দেখে কাঁদা: এতদিন ধরে সাধের ফোনে তোলা সব ছবিগুলোকে দেখে সে হয়তো ফুঁপিয়ে ফুঁপিয়ে কেঁদে উঠতেও পারে। আবার খচখচ করে বিভিন্ন পোজে সেলফি তুলে পাঠিয়ে দিতে পারে আপনার বেস্ট ফ্রেন্ডকে।

এক্সারসাইজ করার ইচ্ছা: অবসর সময়ে ব্যায়াম করার ইচ্ছা জাগতে পারে তার। আবার ৫ বার স্ট্রেচ আপ করার পরই, ক্ষান্ত দিতে পারে সে।

স্বামীর শার্ট, টি-শার্ট পরে ঘরে মহড়া: আপনি হয়তো কোনওদিন ভাবেনওনি এরকম কিছু, কিন্তু আপনাকে চমকে দেয়ার জন্য চলতে পারে স্ট্রিপটিজের অনুশীলন।

গর্ভবতী হলে কেমন দেখতে লাগবে নিজেকে: শার্টের মধ্যে একটা বালিশ ঢুকিয়ে আয়নার সামনে চলতে পারে সে পরীক্ষা-নিরীক্ষা।

ইমোশনাল গান শুনে বা ভিডিও দেখে উছলে উঠতে পারে নারীর আবেগ: কাঁদতে কাঁদতে আবার সে আয়নায় নিজেকে দেখেও নিতে পারে কেমন লাগে কাঁদলে তাকে দেখতে।

কার্পেট পরিষ্কারে লেগে পড়তে পারে: যে কার্পেট দোকানে দিয়ে পরিষ্কার করানোর কথা, সেই কার্পেট পরিষ্কারে লেগে পড়তে পারে সে নিজেই।

পর্ন দেখার বাসনা: একা একা ঘণ্টার পর ঘণ্টা ধরে পর্ন দেখেও সময় কাটাতে পারে নারী।

হস্তমৈথুন: ঘরে একাকী নারী হস্তমৈথুনেও রত হতে পারে। কিন্তু উত্তেজনার সেই মুহূর্তে তার মননে স্বপ্নপুরুষটি কে, সে জানে খোদ নারীমনই!

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/এসএম

উপরে