আপডেট : ১৪ জানুয়ারী, ২০১৬ ১৭:০৬

৮ কিংবা ৮০ নয়, ৮’শ শিশুর পিতা সাইমন!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
৮ কিংবা ৮০ নয়, ৮’শ শিশুর পিতা সাইমন!

বিচিত্র পৃথিবীতে প্রায় সাড়ে সাতশ কোটি মানুষের বাস। একেকজনের ইচ্ছা, আকাঙ্খা যেমন আলাদা, তেমনি তাদের মানসিকতাও ভিন্ন। কেউ এক সন্তানের পিতা হয়ে অনুভব করেন স্বর্গীয় সুখ। আবার এমনও কেউ আছেন সন্তানের সংখ্যায় ছাড়িয়ে যান ফুটবল টিমকেও।

প্রজন্ম টিকিয়ে রাখার অমোঘ ইচ্ছা থেকেই মূলত মানুষ সন্তানের জন্ম দেন। তবে কেউ কেউ সন্তান জন্মদানের ব্যাপারটিকে নিয়ে যান এক সাধারণ ছেলে খেলায়। উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, ভারতের এক ব্যাক্তির প্রায় ১৫০ জন সন্তান লাভের কথা। এই তথ্যটা শুনে হয়তো অনেকেই চমকে উঠেছেন। আপনার জন্য আছে এক বজ্র চমকও। তবে শুনুন সে কথা-

ইংল্যান্ডের বেডফোর্ডশায়ারের সাইমন ওয়াটসন নামের এক ব্যক্তি ‘ভিকি ডোনার’ সিনেমার মত লুকিয়ে লুকিয়ে নয়, প্রকাশ্যে এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় বিজ্ঞাপন দিয়ে স্পার্ম (শুক্রানু) ডোনেট করেন। শুধু তাই নয় এক পাত্রের স্পার্মের (শুক্রানু) জন্য দর হাঁকেন ৫০ পাউন্ড।

চাকরি ছেড়ে স্রেফ স্পার্ম বিক্রি করে দিব্যি সংসার চালিয়ে যাচ্ছেন সাইমন। বলেছেন, ‘‘একেবারে অন্য ধরনের ক্যারিয়ার তৈরি করেছি।’’

এভাবেই চলছে গত ১৬ বছর ধরে। তিনি বলেছেন, ‘‘অনেক মহিলাই বলেন, স্পার্ম দেওয়া উচিত বিনাপয়সায়। কিন্তু এক পাত্রের জন্য ৫০ পাউন্ড খুব বেশি দর বলে আমার মনে হয় না।’’

সাইমনের নিজের তিনটি সন্তান। দুই ছেলে, এক মেয়ে। এর বাইরে ৮০০-রও বেশি ছেলেমেয়ের ‘জনক’ সাইমন। তার সন্তানরা এখনও প্রায় প্রতি সপ্তাহে ভ্রূণ হিসেবে আসছে কোনও না কোনও মায়ের গর্ভে। বা, জন্ম নিচ্ছে কোথাও না কোথাও।

তিনি বলেন, ‘‘আমার পরিবার ও বন্ধুরা এই পেশা সম্পর্কে জানে।এমনকি নিজের সন্তানরাও আমার এই পেশা সম্পর্কে জানে । ওদের স্কুলের বন্ধুরা এই নিয়ে মজাও করে। আমার ছেলেরা জানিয়েছে, ওরা কোনও দিনই এমন পেশায় আসবে না। কিন্তু আমি করছি বলে ওদের কোনও আপত্তি নেই।’’

ফিল্মের ভিকির মতো সাইমনেরও এই পেশার জন্য স্ত্রীকে নিয়ে সংকট এসেছিল। ভিকির বিয়ে টিকে গিয়েছে (হয়তো ফিল্ম বলেই, হ্যাপি এন্ডিং-এর স্বার্থে)। কিন্তু সাইমনের প্রথম বিয়ে টেকেনি। পরে অবশ্য নতুন বান্ধবীও পেয়ে গিয়েছেন। যার এই পেশা নিয়ে কোনও আপত্তিই নেই।  

তবে যাকে-তাকে স্পার্ম (শুক্রানু) দেন না সাইমন। বলেছেন, ‘‘কেউ স্মোক বা ড্রিঙ্ক করলে আমার আপত্তি নেই। কিন্তু কেউ যদি ড্রাগ অ্যাডিক্ট হন, আমি তাকে স্পার্ম দেই না।’’

নিজের ঔরসজাতদের দেখতে ইচ্ছে করে না? এমন প্রশ্নের উত্তরে সাইমন বলেছেন, ‘‘ওরা সকলে ভাল থাকুক, সুস্থ থাকুক। আমি স্পার্ম (শুক্রানু) দেওয়ার পরে আর সংশ্লিষ্ট মহিলা বা পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ রাখি না।’’

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/আরকে

উপরে