আপডেট : ১৩ জানুয়ারী, ২০১৬ ২০:১৪

পর্নে মাতওয়ারা বিশ্ব, দেখুন পরিসংখ্যান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
পর্নে মাতওয়ারা বিশ্ব, দেখুন পরিসংখ্যান

নিষিদ্ধ বস্তুর প্রতি মানুষের আকর্ষণ দুর্নিবার। আধুনিক স্মার্ট ফোন ল্যাপটপের যুগে পর্ন দেখা যেন পান্তা ভাতের মতো এটি ব্যাপার। তবে জানেন কি, এই পর্নের নেপথ্যে কত বড় একটা ইন্ডাস্ট্রি কাজ করে? আর এর বার্ষিক লাভের পরিমাণই বা কত?

ভারতীয় গণমাধ্যম টাইমস অফ ইন্ডিয়া এ নিয়ে একটা ইনফোগ্রাফিক্স প্রকাশ করে, যাতে এমন তথ্য রয়েছে যা পড়লে আপনার মাথা ঘুরে যেতে পারে।

পত্রিকাটি তাদের এক প্রতিবেদনে জানায়, মোবাইলে প্রতি ৫ জনের মধ্যে ১ জন পর্ন সার্চ করেন। বিশ্বের প্রায় ২৪ শতাংশ মানুষ এটা স্বীকার করেন, যে তাদের মোবাইলে পর্ন ভিডিও রয়েছে।

মোবাইলে সেক্স চ্যাট করার সংখ্যাও বছরে প্রায় ২৫ শতাংশ করে বাড়ছে। ইন্টারনেটে পর্ন দেখিয়ে ৩০০ কোটি মার্কিন ডলারের ব্যবসা করে বিভিন্ন অ্যাডাল্ট ওয়েবসাইটগুলো।
পর্ন দর্শকদের প্রতি ১০ জনের মধ্যে ৯ জনই ইন্টারনেটে শুধুমাত্র ফ্রি পর্ন দেখেন বা অবৈধ কপি করা ভিডিও দেখতেই বেশি পছন্দ করেন।

অনলাইনে পর্ন দেখার জন্য প্রতি সেকেন্ডে ৩ হাজার মার্কিন ডলার রোজগার করে ওয়েবসাইটগুলি।
১৮ বছর হওয়ার আগেই ১০ জনের মধ্যে ৯ জন পুরুষ এবং ১০ জনের মধ্যে ৬ জন মহিলা পর্নোগ্রাফি ভিডিও দেখেন।

প্রায় ৬৯ শতাংশ পুরুষ এবং ৫৫ শতাংশ মহিলা ইন্টারনেটে সমলিঙ্গের সেক্সভিডিও দেখেন। ইন্টারনেটে ২ কোটি ৬০ লক্ষেরও বেশি পর্ন সাইট রয়েছে। অনলাইনে ৮৩ শতাংশ পুরুষ এবং ৫৭ শতাংশ মহিলা গ্রুপ সেক্স দেখা পছন্দ করেন।

ইন্টারনেটে প্রচুর ফ্রি পর্ন সাইটের কারণে ২০০৭ সালের পর থেকে বিশ্ব জুড়ে প্রায় ৫০ শতাংশ আয় কমে গেছে পর্ন ওয়েবসাইট গুলির।

পুরুষরা গড়ে ১২ বছর বয়সেই এ বিষয়ে বেশ অভিজ্ঞ হয়ে ওঠেন। পর্নোগ্রাফিযুক্ত কনটেন্ট নিয়ে সারা বিশ্বে প্রতি দিন ২ হাজার ৫০০ কোটি ইমেল পাঠানো হয়।

শুধুমাত্র মোবাইল পর্ন সাইটগুলি চলতি বছরে ২৮০ কোটি মার্কিন ডলার লাভ করবে বলে অনুমান করা হয়েছে।

মার্কিন মুলুকেই প্রতি দিন ৪ কোটি মানুষ ইন্টারনেটে পর্ন দেখেন। রবিবার বিশ্ব জুড়ে সব থেকে বেশি মানুষ পর্ন দেখেন।

ইন্টারনেটে ৪টির মধ্যে ১টি সার্চ হয়ে থাকে পর্নের বিষয়ে। বিশ্বে প্রতিদিন যত জিনিস ডাউনলোড করা হয়, তার এক তৃতীয়াংশই পর্ন।

প্রতি ৫ জনের মধ্যে ১ জন পুরুষ কাজের জায়গায় পর্ন দেখে থাকেন।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/এসএম

উপরে