আপডেট : ২ জানুয়ারী, ২০১৬ ১৮:১৬

হোটেলের বিছানা বেশি যৌন উত্তেজক

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
হোটেলের বিছানা বেশি যৌন উত্তেজক

অনেক দম্পতিই একঘেয়েমি কাটাতে কদিনের জন্য বেড়িয়ে পড়েন ঘর ছেড়ে।আস্তানা গাড়েন দূরে কোন পাহাড়, অচেনা শহর কিংবা সমুদ্রের তীরে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে হোটেলেই  করতে হয় রাত্রিযাপন।

মজার ব্যাপার হলো, বাড়ির পরিচিত পরিবেশ, পরিচিত বিছানার বাইরে নতুন বিছানায় তারা একে অপরকে আবিষ্কার করেন নতুনভাবে। তারা তখন একে ওপরের প্রতি তীব্র আকর্ষন অনুভব করেন, মেতে ওঠেন নতুন এক যৌন উল্লাসে। কিন্তু এর কারণ কি?

কারণ খুঁজছেন গবেষকরাও। গবেষনায় জানা গেছে, চেনা বিছানা থেকে হোটেলের অচেনা বিছানা অনেক বেশি যৌন উত্তেজনা তৈরি করে। কারণ এসময় অনেক বেশি ডোপামিন নির্গত হয়। যা যৌনতার মজা বাড়িয়ে দেয়। বাড়িয়ে দেয় পরস্পরের প্রতি আকর্ষণও। অনুভূতিটা পৌঁছে যায় মগজে। তাতে উত্তেজনা আরও বাড়ে।

গবেষকরা বলছেন, এই অনুভূতিটা হল ঠিক অনেক দিন পরে নিজের পছন্দের খাবার খাওয়ার আনন্দের মতো। মস্তিষ্ক থেকে নির্গত ডোপামিন এমন আবেশ তৈরী করে, মনে হয় যা আগে কখনও মেলেনি। আর তাই যৌনমিলনের জন্য হোটেল আদর্শ জায়গা। এমনই পরামর্শ গবেষকদের।

তাঁদের মতে যৌনতায় প্রধান বাধা উদ্বেগ। মহিলাদের ক্ষেত্রে এটা আরও বেশি মাত্রায়। শোয়ার ঘরও যে নিজের সংসারের মধ্যেই। হোটেলর ঘর সেই সব উদ্বেগ থেকে অনেক দূরে নিয়ে যায়। সেই সঙ্গে হোটেলের লাক্সারিও মনের মধ্যে একটা অন্য আনন্দ তৈরি করে। মনে হয়ে এই সময়টা, এই জায়গাটা আমার চেনা জীবনের বাইরে।

গবেষকদের দাবি রুটিনবদ্ধ যৌনতা ছেড়ে বেড়িয়ে আসার জন্য হোটেলবাস খুবই জরুরি। তার জন্য অনেক দূরে কোথাও যেতে হবে না। কাছেই কোনও হোটেলে সময় কাটিয়ে আসা যায়। এমনকি সুযোগ থাকলে বাড়িতেই যৌনতার জন্য ঘর বদল করলেও যৌনতার অন্য অনুভূতি মেলে।

এখানেই শেষ নয়। গবেষকরা বলছেন, যৌনতার সময়কার কথাবার্তা এবং পদ্ধতি বদলেও আসে যৌনতার চরম সুখ।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/পিএম

উপরে