আপডেট : ২৪ মার্চ, ২০১৬ ১৭:৩৪

শিশুদের স্বাস্থ্যকর জীবনযাপন

কিডস্
শিশুদের স্বাস্থ্যকর জীবনযাপন

আধুনিক রোবটিক যুগে একটু ভেবে দেখুন তো, আপনার শিশুটি শেষ কবে একটি গাছে উঠেছে। অথবা কাগজের নৌকা বানিয়ে বৃষ্টির পানিতে ভাসিয়েছে। আধুনিক মা-বাবা এ ধরনের কাজকে ফালতু বলে ধরে নিয়েছেন। কাজেই তাঁদের শিশুদের জীবনযাপনেও এসেছে পরিবর্তন। কিন্তু বহু গবেষণায় সব সময় বলা হয়েছে, বাইরে খেলাধুলা, ঘুরে বেড়ানো ইত্যাদি সব সময় শিশুদের মাঝে সামাজিকতার জন্ম দেয় এবং তাদের সঠিক মানুষ হয়ে গড়ে উঠতে সহায়তা করেছে। তা ছাড়া স্বাস্থ্যকর উপায়ে বেড়ে উঠতে প্রকৃতির সঙ্গে সময় কাটানোর ওপর ব্যাপক গুরুত্ব দিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। তাই পরিবার ও সন্তানকে নিয়ে আপনার প্রায়ই বেরিয়ে পড়া উচিত। এখানে জেনে নিন নিজেরসহ শিশুদের জন্য স্বাস্থ্যকর জীবনযাপনের পাঁচটি উপায়।

১. ভ্রমণ : বাইরে কোথাও ঘুরতে যাওয়ায় সঙ্গে দৈহিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের বিষয়টি জড়িত। তাই পরিবারের সবাইকে নিয়ে কাছে বা দূরে কোনো প্রাকৃতিক পরিবেশে হারিয়ে যান। খাবারের আয়োজন, আরামদায়ক পোশাক আর অন্যান্য প্রস্তুতি নিয়ে আর দেরি করবেন না।

২. তাঁবুতে রাত কাটানো : এটা শিশুকালের ফ্যান্টাসি হলেও সব বয়সীদের জন্য দারুণ এক মজার অভিজ্ঞতা। বাইরে তাঁবুতে রাত কাটানোর রোমাঞ্চকর অভিজ্ঞতা অর্জন না করলেই নয়। এভাবে রাত কাটানোর প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র গুছিয়ে নিন। সবাইকে নিয়ে বিশেষ কোনো স্থানে গিয়ে তাঁবু খাটিয়ে রাত কাটিয়ে আসুন।

৩. সবজি চাষ : বলো তো বাবু, টমেটো কোথায় জন্মে? বিজ্ঞের মতো সে বলল, সবজির বাজারে জন্মে। এই যদি হয় আপনার শিশুর ধ্যান-ধারণা, তবে কিছু একটা করতেই হবে আপনাকে। বাড়ির আঙিনা বা ছাদ বা বারান্দার টবে ছোট পরিসরে সবজি চাষ করুন। শিশুদের নিয়ে এই কাজটি করে দেখুন তারা দারুণ উপভোগ করবে। অনেক কিছু শিখতে পারবে অবশ্যই। নিয়মিত তাদের বাজারে নিয়ে যান। বিভিন্ন খাবার জিনিস দেখান এবং চিনিয়ে দিন।

৪. সকালে সাইকেলে সবাই : বহু সকালে বাড়ির সবাইকে নিয়ে সাইকেল ভ্রমণে বেরিয়ে পড়ুন। দৌড়ানো বা হাঁটার প্রয়োজন নেই। সবাই মিলে সাইকেল নিয়ে বের হলে দারুণ মজা হবে। পাশাপাশি সাইকেল চালানো স্বাস্থ্যের জন্য ভালো। এভাবেই স্বাস্থ্যকর আনন্দ দিয়ে দিনের শুরু করুন। কয়েক দিন করলে অভ্যাস গড়ে উঠবে।

৫. একটি খেলা খেলুন : সবার পছন্দের একটি খেলা বেছে নিন। সবাইকে নিয়ে মাঠে যেতে না পারলে বাড়িতেই খেলায় মেতে উঠুন। সামান্য এই কাজটি কী পরিমাণ উপভোগ্য হয়ে উঠবে তা শুরু করলেই বুঝবেন। শিশুদের এই খেলায় অংশগ্রহণ অবশ্যই নিশ্চিত করতে হবে। এভাবে নিয়মিত কয়েকটি খেলা খেলুন। জীবনটাকে সবাই মিলে উপভোগ করুন। 

উপরে