আপডেট : ২০ জুন, ২০১৯ ১১:১৩

প্রাথমিক নিয়োগ: ওএমআর শিট পূরণে ৪ ভুল করছেন পরীক্ষার্থীরা

অনলাইন ডেস্ক
প্রাথমিক নিয়োগ: ওএমআর শিট পূরণে ৪ ভুল করছেন পরীক্ষার্থীরা

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা ওএমআর শিট পূরণ নিয়ে পরীক্ষার্থীদের মাঝে বিভ্রান্তি তৈরি হয়েছে। শিটে কোন বছর পূরণ করতে হবে তা নিয়ে প্রার্থীদের মধ্যে এই সমস্যা। পরীক্ষায় বছর পূরণের জন্য শূন্যস্থানে ২০১৮ লিখবেন নাকি ২০১৯, তা নিয়ে অনেকের মধ্যেই দ্বিধা-দ্বন্দ্ব কাজ করছে। এছাড়াও আরো ৩টি ভুল করছেন পরীক্ষার্থীরা। বিষয়টি ইতোমধ্যেই অধিদপ্তর এমনকি এর আগে দেওয়া পরীক্ষার্থী সূত্রে জানা গেছে।

মূলত এসব সমস্যাসহ সামাগ্রিক বিষয় নিয়ে লিখেছেন বসন্ত চৌধুরী। তিনি বলছেন, যদি ব্যস্ততা থাকে এবং লেখাটি পড়ার সময় না থাকে, তাহলে শুধু ৫, ৬ এবং ৭ পড়ুন। নয়তো আপনার বিপদও হতে পারে। বিডিটাইমস৩৬৫ এর পাঠকদের জন্য লেখাটি তুলে ধরা হলো-

১. প্রথমে ওএমআর-এর ডানদিকে এবং উপরে পরীক্ষার সাল লিখতে হবে। প্রশ্ন হলো ২০১৮ লিখবেন নাকি ২০১৯ লিখবেন? মনে রাখবেন আপনাকে ২০১৮ লিখতে হবে। আপনার প্রবেশপত্রে স্পষ্ট করে ২০১৮ লিখা (কোন স্যার যদি না জেনে ২০১৯ লিখতে বলে তাও ২০১৮ লিখবেন)। অবশ্য সমস্যার বিষয়টি নিয়ে এর আগে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর বলেছে, ‘শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তিটি প্রকাশ করা হয়েছে ২০১৮ খ্রিষ্টাব্দে। পরীক্ষা নিতে আমাদের একটু দেরি হয়েছে। তাই, প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার ওএমআর শিটে ‘২০১৮ লিখতে হবে। তিনি আরও জানান, তবে কোনো প্রার্থী যদি ওএমআর শিটে সনের শূন্যস্থানে ভুল করেন তাহলেও অসুবিধা নেই। ওএমআর এর ওই অংশটি কম্পিউটার রিড করবে না।’

২. প্রথমে আপনার নাম বাংলায় লিখতে হবে। তারপর ইংরেজি বড় হাতের অক্ষরে নিজের নাম লিখবেন, তারপরে যথাক্রমে বাবা এবং মায়ের নাম লিখতে হবে।

৩.তারপর আপনার জেলার নাম লিখতে হবে, এখানে আপনি স্পষ্ট করে লিখবেন যাতে যে কেউ পড়তে পারে।

৪. আপনার রোল নম্বর বাংলায় উপরে ফাঁকা ঘরে লিখে, নিচের ঘরগুলি পূরণ করতে হবে যেমনটা এসএসসি, এইচএসসিতেতে পূরণ করতেন। তবে এখানে কিন্তু বাংলায় লিখতে হবে।

৫. প্রবেশপত্রে দেখুন আপনাকে একটা কোড দেয়া হয়েছে। হয়তো সেটা ইছামতী, সুরমা, পদ্মা, ইত্যাদিসহ নানা রকম দিয়েছে।আপনার প্রবেশপত্রে যদি ইছামতী লিখা থাকে তাহলে ইছামতী ওএমআর নিবেন। স্যার পরীক্ষা হলে ডেকে বলবেন ইছামতী, পদ্মা, সুরমা...... আপনার যেই কোড সেই কোডের ওএমআর স্যারের কাছ থেকে বুঝে নিবেন। যদি সঠিক ওএমআর না নেন তাহলে আপনি ফেইল।

৬. এখন প্রশ্ন দেওয়ার ১৫ মিনিট পূর্বে স্যার আবার ইছামতী জন্য একটি কোড বলবেন। কোডটি একটি সংখ্যা। ধরুণ আপনার সুরমা। স্যার বলবেন সুরমা ২৮৭৬. আপনি নম্বরটি লিখে রাখবেন। আবার স্যার যদি বলে পদ্মা ৮৫৮৬। যাদের পদ্মা সেট তারা এই নম্বরটি লিখে রাখবেন। প্রশ্ন দেওয়ার সময় আপনার সংখ্যাটি স্যারকে বললে আপনাকে সেই সংখ্যা বিশিষ্ট কোড অনুসারে প্রশ্ন দিবে।

৭. আপনাকে যে সংখ্যা বিশিষ্ট কোড স্যার বললেন সেই সংখ্যাটি আপনি ওএমআর -এর ডান দিকের নিচে লিখে দিতে হবে। ধরুণ আপনার কোড ছিল ইছামতী। এই নামটি ওএমআর-এর ডানদিকের নিচে লিখা থাকে আগে থেকেই। আপনি ইছামতীর নিচে সংখ্যা কোড ৮৫৮৬ যেটি স্যার বলেছিল সেটি লিখবেন।

৮. কোনরকম ঘড়ি, ইলেকট্রনিকস ডিভাইস নিবেন না, আপনাকে এক্সপেল করলেও অবাক হওয়ার কিছু নেই।

মেয়েরা হিজাব যদিও ব্যবহার করেন; আর যাই করেন আপনার কান যেন স্পষ্ট বের করা থাকে। তবে মাদ্রাসায় যদি পরীক্ষার হল হয় আপনার, ওনারা ততটা চাপ দিবেন না আপনাদেরকে। যদি এমনটি না করেন সমস্যা হতে পারে। এমনকি এক্সপেলও করতে পারে আপনাকে।

৯. স্যারের সাথে ভাল ব্যবহার করুন।হয়তো  গুরুতর আপরাধেও আপনি ক্ষমা পেতেও পারেন। টেবিলেন নিচে কাগজ পড়ে আছে কিনা দেখুন।থাকলে পরিষ্কার করে ফেলুন।

১০. আপনার নিকটে বসা ভাইয়া বা আপুর সাথে কথা বলবেন না। বললেও আস্তে বলুন, যাতে স্যার না শুনে। এমন অনেকেই এক্সফেল হয়েছে যারা কথা বলেছিলো। হিজাব ব্যবহারকারী এক মেয়ে কান না দেখানোর কারনে নাকি ওএমআর দেওয়া হইনি, এমন একটা কথা শুনলাম এ বছর।

১১. পরীক্ষার কেন্দ্রে কমপক্ষে ৩০-৪০ মিনিট পূর্বে প্রবেশ করুন। একটু আগে প্রবেশ করলে আপনার ক্ষতি কি বলেন?

১২. হাতে সময় নিয়ে বের হোন। বিপদ বলে আসে না। যারা খুব দূরের তারা আগের দিন নিকটতম কোন স্থানে থাকতে পারেন।

১৩. কালকে আরেকটি পোস্ট পাবেন যাতে থাকবে কি করে সহজে উত্তর করতে হয় এবং কনফিউন দূর করার উপায়।

১৪. কোন প্রশ্ন থাকলে তা আমাকে জানান।

বিডিটাইমস৩৬৫ডটকম/জিএম

উপরে