আপডেট : ১৭ আগস্ট, ২০১৮ ০৮:৫৪

ইতালি ইইউ সম্পর্কে ফাটল ধরালো ধসে পড়া সেতু

অনলাইন ডেস্ক
ইতালি ইইউ সম্পর্কে ফাটল ধরালো ধসে পড়া সেতু
ইতালিতে গত ১৪ আগস্ট মোরান্ডি ব্রিজ নামের এক সেতু ধসে দেশটির অন্তত ৩০ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত ও নিখোঁজ রয়েছেন অনেকেই। আর এই সেতু ধসের ঘটনার পর থেকেই ইতালি ইইউ মধ্যে সম্পর্কে ফাটল ধরতে শুরু করেছে। ইতালির পক্ষ থেকে ইউরোপীয় ইউনিয়নের সীমিত বিনিয়োগকেই সেতু ভেঙে পড়ার কারণ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। তবে এমন বক্তব্যের বিপরীতে ইইউ’র প্রেসিডেন্ট জ্যান-ক্লদ জুকারের মুখপাত্র বলেছেন, ইইউ আনুষ্ঠানিকভাবে ইতালিকে তাদের অবকাঠামো উন্নয়ন, মোরান্ডি সেতু মেরামত ও অন্যান্য সড়ক মেরামতের জন্য ইতালির উন্নয়ন তহবিলে কোটি কোটি ডলার দেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে জেনোয়ার চারপাশের সড়কগুলোকে বিশেষভাবে উন্নত করার পরিকল্পনার জন্য স্বাক্ষর করেছে ইইউ। ইইউ প্রেসিডেন্ট মুখপাত্র আরও বলেন, এখন কিছু বিষয় পরিষ্কার করে বলার সময় এসেছে। ২০১৪-২০২০ প্রকল্পের আওতায় রাস্তা ও রেল খাতের মতো অবকাঠামোগত উন্নয়নে ইইউ ইতালিতে ২.২ বিলিয়ন ইউরো বিনিয়োগ করেছে। কিন্তু এসব অর্থ ফেরতের কোনো তোড়জোড় নেই তাদের। এরপরও অবকাঠামোগত বিনিয়োগের আওতায় ২০১৮ অর্থবছরে ইতালি আরও ৮.৫ বিলিয়ন অর্থ পাবে। যা জেনোয়া অঞ্চলের বিভিন্ন অবকাঠামো মেরামতের জন্য দেওয়া হবে। মুখপাত্র জানান, ২০১৮ সালের প্রথম দিকেই ইইউ ইতালীয় কর্তৃপক্ষকে পরামর্শ দিয়েছিল, বিনিয়োগকৃত অর্থ অবকাঠামোগত উন্নয়নের জন্য সঠিক ভাবে ব্যয় করতে। তবে ইতালি সেই অর্থ সঠিক ভাবে ব্যয় করেনি। তারা সুবিধাভোগীদের পরিচয় দিয়েছে। ইতালির অভ্যান্তরীণ মন্ত্রী মাত্তো সালভিনি বলেছেন, ইইউ’র নীতির কারণেই তাদের এখানকার বিনিয়োগকে কমিয়ে দেওয়া হচ্ছে। তিনি বলেন, যদি তাদের বাহ্যিক নীতি আমাদের রাস্তা ও স্কুলগুলোতে বিনিয়োগ করতে কোনো প্রকার সীমাবদ্ধতা তৈরি করে, তবে সেই নীতি আমাদের কাছে প্রশ্ন হিসেবে হাজির হয়। ২০১১ অর্থনীতিবিদ মারিও মন্টি ইতালি প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন এবং ঋণ কমানোর জন্য নানা চেষ্টা করনে। কিন্তু তাঁর চেষ্টা সফল হয়নি। বরং ইতালির শ্রম বাজার আরও দুর্বল হয়ে পড়ে। গত ১৪ আগস্ট ইতালির জেনোয়া শহরের গুরুত্বপূর্ণ মহাসড়কের উপর সেতু ধসে অন্তত ৩০ জন নিহত হয়। আহত এবং নিখোঁজ রয়েছে আরও অনেকে। মোরান্ডি সেতু ধসে অনেক গাড়ি প্রায় তিনশো ফুট নিচে গিয়ে পড়ে।
উপরে